top of page

যুবতির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার, আটক মা

মেয়েকে দেহ ব্যবসার জন্য দিল্লিতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ মায়ের বিরুদ্ধে। যেতে রাজি না হওয়ায় মেয়েকে মারধর করে ঘরবন্দি করে রাখা হয় বলেও অভিযোগ। আজ সকালে যুবতির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁচল থানার বুজরুক শীতলপুর গ্রামে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পাঠিয়ে মৃত যুবতির মাকে আটক করেছে পুলিশ।



মৃত যুবতির নাম শিবানী দাস (১৯)। জানা গিয়েছে, তার মা লক্ষ্মী দাস দিল্লিতে কাজ করেন। শিবানীরা দুই বোন। তিন মাস আগেই পাশের গ্রামের যুবক, মহাবীর দাসের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। সম্প্রতি লক্ষ্মী বাড়ি ফিরেছে। তা জানতে পেরে শিবানী গত শনিবার মায়ের সঙ্গে দেখা করতে বাবার বাড়ি আসে। অভিযোগ, শিবানীকে দিল্লিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য জোড় করতে থাকে লক্ষ্মী। বিষয়টি বুঝতে পারে শিবানী। সে সাফ মানা করে দেয়। এরপরেই শিবানীকে মারধর করে ঘরে বন্দি করে রাখা হয় বলে অভিযোগ। আজ সকালে স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ হওয়ায় দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকতেই শিবানীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে ঘটনাস্থল থেকে পালানোর চেষ্টা করে লক্ষ্মী। স্থানীয় বাসিন্দারা লক্ষ্মীকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে লক্ষ্মীকে আটক করেছে।




চাঁচল থানার আইসি সুকুমার ঘোষ বলেন, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে (সুয়োমোটো) মামলা করে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page