top of page

ফসল কাটতে মানা, করোনা আতঙ্কে গ্রামের রাস্তায় ব্যারিকেড

করোনা আতঙ্কে গ্রামের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছিল এলাকাবাসীরা। এমনকি কৃষকের ধান কাটার জন্যও সেই রাস্তা ব্যবহার করা যাবে না বলে পোস্টারও পড়েছিল। সেই খবর পেয়ে মালদা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাস্তা খুলে দেয়।


গতকাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সচিবের স্বাক্ষরিত চিঠিতে ঘুম উড়েছে জেলাবাসীর৷ ওই চিঠির সঙ্গে গোটা দেশের ৭৩৩টি জায়গার নাম উল্লেখ করা হয়েছে৷ কোন জায়গা কোন জোনে রয়েছে তারও উল্লেখ রয়েছে সেখানে৷ ওই তালিকার ৭২০ নম্বরে মালদাকে রেড জোনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে৷ জেলার বেশিরভাগ অংশে স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তা বন্ধ করে বাইরের লোক ঢুকতে দিচ্ছেন না। পুরাতন মালদার সাহাপুরের ভাটরাগ্রামেও রাস্তা বন্ধ করেছিল স্থানীয়রা। এমনকি ধান কাটার জন্য কৃষকদেরও প্রবেশের অনুমতি ছিল না। এই খবর পেয়ে মালদা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাস্তা খুলে দেয়।



মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা জানান, আইন ভেঙে যদি কেউ রাস্তা বন্ধ করে তবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


টপিকঃ #Lockdown

コメント


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page