top of page

যত্রতত্র পড়ে ব্যবহৃত পিপিই কিট, রেকর্ড সংক্রমণের মধ্যে আরেক আতঙ্ক

ফের রেকর্ড সংক্রমণ জেলায়। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২২২ জন। দিনের পর দিন জেলায় সংক্রমিতের সংখ্যা বৃদ্ধির ঘটনায় জেলাজুড়ে টানা লকডাউনের দাবি উঠতে শুরু করেছে। এদিকে, মালদা মেডিকেল কলেজে করোনা পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে ব্যবহৃত পিপিই কিট পড়ে থাকার ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে মালদা মেডিকেল কলেজ চত্বরে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মালদা মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল।


দিনের পর দিন জেলায় বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছে রেকর্ড সংখ্যক ব্যক্তি, জেলায় মোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা এখন ৩৩৭৭। গতকাল সন্ধ্যায় রাজ্য সরকারের কোভিড-১৯ হেলথ বুলেটিনে এই পরিসংখ্যান প্রকাশিত হয়েছে। এরপর রাতে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে মালদায় সংক্রমিত হয়েছেন ২২২ জন। জেলা জুড়ে সংক্রমণ রুখতে টানা লকডাউনের দাবি তুলতে শুরু করেছে আমআদমি। যদিও লকডাউন নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি জেলাপ্রশাসন। আপাতত রাজ্য সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী ২০ ও ২১ তারিখ সারা রাজ্য জুড়ে লকডাউন বহাল থাকবে।



এদিকে, মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল চত্বরে ব্যবহৃত পিপিই কিট পড়ে থাকার ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে মেডিকেল চত্বরে। জেলা স্বাস্থ্য দফতর ও পুর কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতেই এই ঘটনা ঘটছে বলে দাবি করেছেন বিজেপির জেলা সহ সভাপতি অজয় গাঙ্গুলি।




সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলেন মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ ও ইংরেজবাজার পুরসভা। মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রিন্সিপাল পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায় বলেন, বিষয়টি তিনি সংবাদমাধ্যমের কাছে জানতে পারলেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। ইংরেজবাজার পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের সদস্য দুলাল সরকার বলেন, যদি ইচ্ছাকৃতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকে তবে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মালদা জেলার টাটকা নিউজ এখন আমাদের অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে। বিনামূল্যে পড়তে এখানে ক্লিক করুন


টপিকঃ #CoronaVirus

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page