top of page

স্মার্টফোন না পেয়ে ‘আত্মঘাতী’ অভিমানী স্ত্রী

স্মার্টফোন কিনে দেবার জন্য জেদ ধরেছিল স্ত্রী। স্বামী সেই আবদার পূরণ না করতে পারায় অভিমানে আত্মঘাতী হল স্ত্রী। রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ি সারদা কলোনি এলাকায়। মৃতদেহটি উদ্ধার করে পরিবারের লোকেরা মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করে।



মৃত বধূর নাম কৃষ্ণা প্রামাণিক। ৩০ বছর বয়স। স্বামী দীনেশ প্রামাণিক পেশায় টোটোচালক। দুই সন্তানকে নিয়ে পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ি সারদাপল্লী এলাকায় ভাড়া থাকতেন তাঁরা। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই কৃষ্ণাদেবী তার স্বামীর কাছে স্মার্টফোন কেনার জন্য চাপ সৃষ্টি করছিল। স্বামী দীনেশ প্রামাণিক তাঁকে সাফ জানিয়েছিলেন তিনি তা কিনে দিতে পারবেন না। এই নিয়েই প্রায়শই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ চলত। অভিমানে রবিবার নিজের শোয়ার ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে ওই গৃহবধূ। দুপুরে খাবার খেতে বাড়ি গিয়ে দীনেশবাবু স্ত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান। তড়িঘড়ি কৃষ্ণাদেবীকে উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।




এদিকে, মেয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছুটে আসেন বাবা বাদল সূত্রধর। তিনি নিজেও মেয়ের এই জেদের কথা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, আজ সকালেও তাঁর মেয়ে তাঁকে ফোন করে মোবাইল ফোন কেনার বিষয়টি জানায়। তিনি মেয়েকে বোঝান অহেতুক এই মোবাইল কেনার জন্য জামাইকে যাতে হেনস্তা না হতে হয়। এরপরেই অভিমানে আত্মঘাতী হয় কৃষ্ণা। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page