top of page

লকডাউনে কাজ ছিল না মৃত রাজমিস্ত্রির, দাবি পরিবারের

লকডাউনে কর্মহীন হয়ে আত্মহত্যার অভিযোগ উঠল হবিবপুরে। যদিও পরিবারের দাবি মানতে নারাজ প্রশাসন। পারিবারিক কারণেই এই ঘটনা বলে দাবি প্রশাসনিক কর্তাদের। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হবিবপুরের ঋষিপুরে।



মৃত শ্রমিকের নাম রাজকুমার মণ্ডল (৪৫)। রাজকুমারবাবু পেশায় রাজমিস্ত্রি। আজ তাঁর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃতদেহটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় হবিবপুর থানার পুলিশ। রাজকুমারবাবুর ভাই সমীর মণ্ডল বলেন, “রাজকুমারবাবু রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। লকডাউনে কাজ ছিল না তাঁর। টাকা-পয়সা না থাকায় খাবারের অভাব দেখা দিয়েছিল। এনিয়ে পরিবারে অশান্তি লেগে থাকত। লকডাউনে কর্মহীন হয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন রাজকুমারবাবু।”একই বক্তব্য রাজকুমারবাবুর দাদা উত্তম মণ্ডলেরও।


যদিও পরিবারের অভিযোগ মানতে নারাজ জেলা প্রশাসন। হবিবপুরের বিডিও শুভজিৎ জানা বলেন, পারিবারিক কারণে আত্মঘাতী হয়েছেন ওই শ্রমিক। এই ঘটনার সঙ্গে লকডাউনের কোনও সম্পর্ক নেই। হবিবপুর থানার আইসি পূর্ণেন্দু মুখার্জি জানান, মৃতদেহটিকে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় আপাতত একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করা হয়েছে।


টপিকঃ #Lockdown

Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page