top of page

পঞ্চায়েত ভোটের আগে নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ্যে

তৃণমূল সুপ্রিমোর ভাইয়ের উপস্থিতিতে মঞ্চ থেকেই দলের জেলা সভাপতি ও চেয়ারম্যানের পদত্যাগের দাবিতে সরব হলেন পুরোনো তৃণমূল নেতারা৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনের মুখে ফের একবার প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল।


গতকাল সন্ধেয় রতুয়া-১ নম্বর ব্লকের চাঁদমুনি ২ নম্বর গ্রামপঞ্চায়েতের বাটনায় জয়হিন্দ বাহিনীর সভা ছিল। সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের রাজ্য সভাপতি কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর উপস্থিতিতে সভা মঞ্চ থেকেই স্থানীয় নেতা মোহম্মদ হেসামুদ্দিন বলেন, দলের বর্তমান জেলা সভাপতি আর চেয়ারম্যানকে দ্রুত বহিষ্কার না করা হলে তাঁরা অন্যরকম চিন্তাভাবনা করবেন। জেলা সভাপতি আর চেয়ারম্যান জেলা তৃণমূলটাকে বিক্রি করে দিতে চায়৷ এরা টাকা ছাড়া আর কিছু বোঝে না৷ দুর্নীতিতে একেবারে ডুবে গিয়েছে৷ এদের বহিষ্কার না করা হলে জেলায় দলের ফল ভালো হতে পারে না৷



এদিকে, সভায় বিক্ষুব্ধ নেতৃত্বকেই কার্যত সমর্থন করেছেন কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সভামঞ্চ থেকে তিনিও জানান, দলের পুরোনো কর্মীদের অনেকের মধ্যেই ক্ষোভ রয়েছে, তাঁরা সম্মান পাচ্ছেন না৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানেন, পুরোনো কর্মীদের সামনে এনে কীভাবে দলটাকে বাঁচাতে হয়৷


ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান সমর মুখোপাধ্যায় জানান, বাটনা এলাকায় জয়হিন্দ বাহিনী সভা করে তাঁর বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করেছে৷ এরা দলের ভাবমূর্তি খারাপ করার চেষ্টা করছে৷ এই জয়হিন্দ বাহিনীকেই দল থেকে ছুঁড়ে ফেলতে হবে৷




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page