top of page

মানভঞ্জন করতে মালদায় নেতার বাড়িতে টিম পিকে

রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা, শনিবার দুপুরে মেদিনীপুরের কলেজ মাঠে বিজেপি নেতা অমিত শাহের জনসভায় যোগ দেবেন শুভেন্দু অধিকারী। বুধবার বিকেলে শুভেন্দুর ইস্তফার পরেই মালদা জেলা তৃণমূলে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। দলত্যাগ করেছেন একাধিক পঞ্চায়েত সদস্য এবং বিভিন্ন অঞ্চলের নেতারা। গতকাল তৃণমূল থেকে পদত্যাগ করেন হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামপঞ্চায়েতের দলনেতা দ্রোণাচার্য ব্যানার্জি। আজ দলত্যাগী সেই নেতার বাড়িতে এসে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করল প্রশান্ত কিশোরের টিম। সঙ্গে ছিলেন মালদা জেলা তৃণমূলের সহসভাপতি বিকাশ ব্যানার্জি, হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি জিয়াউর রহমান, তৃণমূল নেতা জম্মু রহমান সহ অন্যান্য তৃণমূল নেতারা। বৈঠক শেষে দলত্যাগী তৃণমূল নেতা দ্রোণাচার্য ব্যানার্জি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন। তিনি জানান বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে, তাকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার কথা বলা হয়েছে।



গতকাল হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক তৃণমূলের সভাপতি মানিক দাসের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়ে দল ছাড়েন তৃণমূল নেতা দ্রোণাচার্য ব্যানার্জি। শুভেন্দু চর্চার আবহে এই দলত্যাগ ঘিরে জেলা জুড়ে শুরু হয় জল্পনা। দ্রোণাচার্য অভিযোগ জানান, দলে স্বৈরতন্ত্র চালাচ্ছেন সভাপতি। তাঁর দলের বিরুদ্ধে কোনো ক্ষোভ নেই। সভাপতির সঙ্গে কাজ করা তাঁর সম্ভব নয়। তাই তিনি দল ছাড়লেন। যদিও দ্রোণাচার্য ব্যানার্জি শুভেন্দু অনুগামী নন বলে তিনি জানিয়েছেন। এদিন দলত্যাগী এই নেতাকে দলে ফেরাতে তাঁর বাড়িতে যায় টিম পিকে। যদিও তিনি আবার দলে ফিরবেন কী না সেই বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলেন নি।




দ্রোণাচার্য ব্যানার্জি বলেন, প্রশান্ত কিশোরের টিম আজ আমার বাড়িতে সংগঠন সহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করতে আসে। আমার সভাপতিকে নিয়ে সমস্যা সেটা স্পষ্ট জানিয়েছি ওদের। নতুন কোনো দলে এখনই যোগ দিচ্ছি না। তার জন্য অনেক সময় আছে। তাহলে কি দ্রোণাচার্য আবার সিদ্ধান্ত বদল করে তৃণমূলে ফিরবেন? প্রশান্ত কিশোরের টিম দলত্যাগী নেতার বাড়িতে যাওয়ার পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়ে গেছে জেলার রাজনৈতিক মহলে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page