top of page

ক্ষমা প্রার্থনা করে সুজাপুরবাসীর কাছে ভোট চাইবেন শাহনওয়াজ

পিছিয়ে পড়তে হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। গত বিধানসভা নির্বাচনে সারা রাজ্যের মধ্যে রেকর্ড ব্যবধানে জয় এসেছিল মালদার সুজাপুরে। প্রায় ১ লক্ষ ৩২ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয় পেয়েছিলেন শাসকদলের প্রার্থী আবদুল গণি। এক সময়ের কংগ্রেসের গড় যেন পুরোপুরি শাসকদলের দখলে চলে এসেছিল। তবে বছর দুই-তিনের ব্যবধানে শাসকদলের চিন্তা বাড়াচ্ছে সেই সুজাপুর বিধানসভা কেন্দ্রেরই ভোট ব্যাংক। পরিস্থিতি এতটাই নাগালের বাইরে চলে গিয়েছে, ক্ষমা প্রার্থনা করে ভোট চাইতে যাওয়ার কথা বলছেন খোদ তৃণমূল প্রার্থী। দক্ষিণ মালদা লোকসভা কেন্দ্রে সমস্যা বাড়াতে পারে ইংরেজবাজারের ভোট ব্যাংকও। সেই সমস্যাও ভাবাচ্ছে শাসকদলের শীর্ষ নেতৃত্বকে কার্যত তা মেনে নিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী শাহনওয়াজ আলি রাইহান।


আজ দুপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শাহনওয়াজ আলি রাইহান জানান, সুজাপুরের মানুষ দু-হাত তুলে ভোট দিয়ে আমাদের প্রার্থীকে জিতিয়েছেন। অথচ তাঁরা বিধায়কের কোনো পরিসেবা পাননি। স্বভাবতই সুজাপুরবাসীর মনে ক্ষোভ থাকাটা স্বাভাবিক। বিধায়ককে হয়তো এলাকায় দেখা যায়নি, কিন্তু রাজ্য সরকারের সমস্ত পরিসেবা সেখানে পৌঁছেছে। ওই এলাকায় পা রেখেই আমি সুজাপুরবাসীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করব। আগামী দুই বছর যেন সুজাপুর বিধানসভার প্রতিনিধিত্ব থেকে বাদ না পড়ে যায় সেই বিষয়ের দিকে বিশেষভাবে নজর দেব।



ইংরেজবাজার নিয়ে যে শাসকদলের চিন্তা রয়েছে তাও উঠে এসেছে রাইহানের গলায়। তিনি বলেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যের সঙ্গে ইংরেজবাজার নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কোনো সমস্যা হলে উনি সরাসরি তাঁকে সমস্যার কথা জানাতে বলেছেন। এখানে অন্তর্ঘাতের কোনো বিষয় রয়েছে কিনা তাও ভোটের পরে খতিয়ে দেখা হবে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

 

 

 

 

 

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page