top of page

বৃষ্টিতে জল থৈ থৈ চাঁচল-আশাপুর সড়ক, ক্ষোভ সাধারণ মানুষের

একের পর এক ভোট পেরিয়ে যায়। ভোটের আগে রাজনৈতিক নেতৃত্বরা বেহাল রাস্তা সারাইয়ের আশ্বাস দিলেও দীর্ঘদিন ধরে একইভাবে পড়ে রয়েছে চাঁচল-আশাপুর রাজ্যসড়ক। সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় জল জমে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের।


Thieves Enter Two temples in Chanchal Paharpur last night


চাঁচল-আশাপুর রাজ্যসড়ক মালদা ও প্রতিবেশী জেলা উত্তর দিনাজপুরের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগের মাধ্যম। প্রতিবছর বর্ষার মরশুমে রাস্তার ওপরে জমে থাকে হাঁটু জল। জল ডিঙিয়ে যাতায়াত করতে হয় নিত্য পথযাত্রীদের। নিকাশি ব্যবস্থা থাকলেও তা পর্যাপ্ত নয়। ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে ওঠে এই রাজ্যসড়ক। বেহাল রাস্তায় চলাচল করতে গিয়ে প্রায়শই দুর্ঘটনায় পড়তে হয় যাত্রীদের। স্থানীয়দের অভিযোগ, বহুবার পর্যাপ্ত নিকাশি ব্যবস্থার দাবি জানালেও পঞ্চায়েত কিংবা ব্লক প্রশাসন কোনও কাজ করেনি।



স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বেহাল নিকাশি ব্যবস্থার কারণে রাস্তার ওপরে জল জমে থাকে। যাতায়াতের ক্ষেত্রে দুর্ভোগ পোহাতে হয় যাত্রীদের। জমা জলের মধ্যেই দোকান চালাতে হয় বিক্রেতাদের। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে পঞ্চায়েতে নিকাশি নালার সংস্কারের জন্য লিখিত ও মৌখিকভাবে দাবি জানানো হলেও কখনও কোনও উদ্যোগ দেখা যায় না পঞ্চায়েত কিংবা ব্লক প্রশাসনের। যার ফলে আমাদের সারা বছর এই জল যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে থাকতে হয়। অবিলম্বে নিকাশি ব্যবস্থার সংস্কার করে এই সমস্যা থেকে মুক্তি চাইছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page