top of page

আফরাজুলের বাড়িতে সরকারকেও চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ মোহম্মদ সেলিমের

আজ মঙ্গলবার মালদায় আসেন বাম সংসদ মোহম্মদ সেলিম। কালিয়াচকের সৈয়দপুর গ্রামে জেলা বাম নেতৃত্বকে সাথে নিয়ে পৌঁছে যান রাজস্থানে খুন হওয়া শ্রমিক আফরাজুল খানের বাড়ি। সাংসদ সেলিম ছাড়াও তার সঙ্গে ছিলেন, বিধায়ক আনিসুর রহমান, বিধায়ক রফিকুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জমির মোল্লা, মালদার বাম বিধায়ক খগেন মুর্মু, মালদা জেলা সিপিএম সম্পাদক অম্বর মিত্র সহ জেলা বাম নেতৃত্ব।


আফরাজুলের বাড়িতে সরকারকেও চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ মোহম্মদ সেলিমের

আফরাজুলের বাড়ি গিয়ে বাম নেতৃত্ব কথা বলেন পরিবারের সদস্য সহ গ্রামের বাসিন্দাদের সাথে। এদিন বাম সাংসদ মোহম্মদ সেলিম বলেন, ‘এই ঘটনা লাভ জিহাদ নয়। এটি একটি ঘৃণার রাজনীতির খুন। আফরাজুল ব্যক্তিগত কারণে খুন হননি, রাজনৈতিক সামাজিক ব্যবস্থার কারণে খুন হয়েছে। আমরা সর্বশক্তি দিয়ে এই পরিবারের পাশে দাঁড়াবো। সাথে সকল মানুষ দলকে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানাবো। সাথে চূড়ান্ত শাস্তি হোক দোষীর আমরা লড়াই করবো। রাজনাথ সিংকে যখন মুখ্যমন্ত্রী পেয়েছিলেন সেখানেই এই প্রসঙ্গে বলা উচিত ছিল কিন্তু তিনি তা করেননি। ‘আপনে মহল্লামে কুত্তা ভি শের হোতা হে, যাহা শেরনী কো তাকাত দিখানা থা ওহা নাহি দিখায়া’। বলে মন্তব্য করেন বামফ্রন্টের এই সংসদ।

বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ আরো বলেন, 'অপরাধ শুধুমাত্র শম্ভু করেনি। অপরাধ এই দেশের সরকার, প্রধানমন্ত্রী করেছে। সরকারের সাথ না দিলে এমন অপরাধ হয় না। আমি কথা দিচ্ছি প্রধানমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পার্লামেন্টে ধরবো। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের কাজ হাতির দুই দাঁতের মতো। ‘খানেকে এক, ওর দিখানেকে এক’। এমনি তীব্র ভাষায় এদিন কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারকে বিধলেন এই বাম সাংসদ।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page