top of page

তদন্তে গাফিলতি ‘ক্লোজড’ ইংরেজবাজার থানার আইসি

গতকাল সন্ধ্যেয় মালদা জেলা পুলিশের তরফে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় ইংরেজবাজার থানার আইসি অমলেন্দু বিশ্বাসকে পুলিশ লাইনে ‘ক্লোজ’ করা হয়েছে। তদন্তে গাফিলতির অভিযোগ অমলেন্দু বিশ্বাস সহ ইংরেজবাজার থানার তিন পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে৷ জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশেই তাঁদের ক্লোজ করা হয়৷ আপাতত অস্থায়ীভাবে ইংরেজবাজার থানার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এক অফিসারকে৷



পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ফেব্রুয়ারি মাসে ইংরেজবাজারের কমলাবাড়ি মোড় এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের বাইপাসে এক বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে আদালতে পেশ করে নিজের হেফাজতে নেয় পুলিশ। এরপর আদালতে আবার পেশ করা হলে বাংলাদেশির জামিন মঞ্জুর হয়। মামলার আসল তদন্ত ধামাচাপা দেওয়ার জন্য সেই বাংলাদেশির সঙ্গে বিপুল পরিমাণ টাকার হেরফের করা হয়৷ ওই মামলার তদন্তকারী অফিসার ছিলেন এসআই সুবীর সরকার৷ জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়ার নির্দেশে ইংরেজবাজার থানার আইসি অমলেন্দু বিশ্বাস ও সুবীর সরকারের সঙ্গে ক্লোজ করা হয়েছে এসআই নরবু ডুকপা ও তনয় চক্রবর্তীকে৷ এদের বিরুদ্ধে ইলেকট্রনিক সরঞ্জাম ও তথ্যপ্রমাণ লোপাটের অভিযোগে মামলা রুজু হয়েছে।



অলোক রাজোরিয়া, জেলা পুলিশ সুপার


“ইংরেজবাজার থানার আইসি এবং আরও তিন অফিসারকে তদন্তে গাফিলতির অভিযোগে ক্লোজ করা হয়েছে৷ তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে৷ তদন্ত যতদিন চলবে তাঁরা সাসপেন্ড থাকবেন৷ থানার দায়িত্বে এক অফিসারকে অস্থায়ীভাবে নিয়োগ করা হয়েছে৷”



ইংরেজবাজার থানার ক্রাইম মনিটরিং সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার ত্রিগুণা রায় গতকাল রাতে ইংরেজবাজার থানার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন৷ এদিকে এই ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে জেলার পুলিশ মহলে। উল্লেখ্য, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ছিনতাইয়ের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় ইংরেজবাজার থানার এক এএসআইকে। ফের পুলিশ অফিসারদের শাস্তিতে হইচই পড়ে গেছে জেলায়।


মালদা জেলার খবর ও বিনোদনের লেটেস্ট ভিডিয়ো আপডেট পেতে ক্লিক করুন




বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page