top of page

পুজোর মুখে পাকড়াও মাদক পাচারচক্রের পাণ্ডা

বাংলাদেশে ফেনসিডিল পাচারচক্রের অন্যতম পাণ্ডাকে গ্রেফতার করল এনসিবি৷ ধৃতকে গতকাল জেলা আদালতে পেশ করা হলে আগামী ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত তাকে জেল হেপাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক৷ পুজোর মুখে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদায়৷



এনসিবি’র আইনজীবী সুদীপ্ত গাঙ্গুলি জানাচ্ছেন, ধৃত পাচারচক্রের পাণ্ডার নাম সমীর দে (৬৪)৷ বাড়ি দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে৷ গত ৫ নভেম্বর গাজোল টোলপ্লাজায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর উত্তরপ্রদেশের নম্বর প্লেটের একটি লরি আটক করে এনসিবি৷ ওই লরি থেকে ২৫ হাজার বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়৷ গ্রেফতার করা হয় কমলেশ মাঝি (৪৩), পঙ্কজ মিশ্র (১৮) ও সৌম্য সরকার (২৯) নামে তিনজনকে৷ কমলেশের বাড়ি বিহারের গয়া জেলার গোপালপুর গ্রামে৷ পঙ্কজ উত্তরপ্রদেশের সন্ত রবিদাসনগর জেলার নগরদা উপরওয়ার গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা৷ সৌম্যের বাড়ি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলারই গঙ্গারামপুরের দক্ষিণ কেশবপুর গ্রামে৷ ধৃতদের জেরা করে গঙ্গারামপুরের পশ্চিম হালদারপাড়ার বাসিন্দা সন্তু সাহার নাম পাওয়া যায়৷ গ্রেফতার করা হয় সন্তুকে৷ জেরায় সে স্বীকার করে, সে এই পাচারচক্রের সঙ্গে যুক্ত৷ বালুরঘাটের সমীর দে এবং সে একসঙ্গে এই ব্যবসা করে৷ এরপর এনসিবি সমীর দেকে কলকাতা অফিসে জেরার জন্য ডেকে পাঠানো হয়৷ সে অফিসে হাজিরা দেয়৷ সে’ও স্বীকার করে নেয়, দীর্ঘদিন ধরেই তারা বাংলাদেশে ফেনসিডিল পাচারের সঙ্গে জড়িত৷ এরপরেই তাকে গ্রেফতার করে গতকাল মালদা জেলা আদালতে পেশ করা হয়৷ তার বিরুদ্ধে NDPS অ্যাক্টের 8C (r/w) 21C, 23, 25 ও 29 ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে৷ বিচারক আগামী ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত তাকে জেল হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছেন৷



আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page