top of page

আক্রান্ত ডালু, করোনা নিয়ে সতর্ক করল মেডিকেল

এই তো কদিন আগেও বড়োসড়ো সভা করেছিলেন আবু হাসেম খান চৌধুরি (ডালু)। কংগ্রেসের সেই সাংগঠনিক সভায় ঠাসা ভিড়ে মাস্কহীন কর্মকর্তাদের দাপাদাপি চোখে পড়েছিল। তখন হয়তো সকলেই ভেবেছিলেন করোনা ব্যাপারটা ক্লিশে হয়ে গেছে। কিন্তু করোনা যে বহাল তবিয়তে মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমিত হয়ে চলেছে, তার প্রমাণ মিলছে প্রতিদিনই। করোনার সংক্রমণ মিলেছে বরিষ্ঠ সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরির শরীরে। আবু হাসেম খান চৌধুরির এখন বয়স ৭৯ বছর।


তাঁর ছেলে ইশা খান চৌধুরি জানিয়েছেন, গত সপ্তাহে বাবা অসুস্থ বোধ করছিলেন। ২৮ সেপ্টেম্বর তিনি কলকাতার একটি হাসপাতালে ভরতি হন। দু’দিন পর ৩০ সেপ্টেম্বর জানা যায়, বাবার করোনা হয়েছে। এখন তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। সুজাপুরের বিধায়ক ইশা খান আরো জানান, যারা বাবার সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে।



উদ্বেগ আরো বাড়িয়েছে মালদা মেডিকেলের রিপোর্ট। গতকাল রাতে ভিআরডিএল থেকে জারি করা রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ৮৪৬ জনের লালারসের নমুনা পরীক্ষা করে ১২৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি চোখে পড়েছে। অ্যান্টিজেন টেস্টে আরো একজনের পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।


মালদা মেডিকেল থেকে পরিস্থিতি নিয়ে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। মেডিকেলের চিকিত্কদের বক্তব্য, এখন সতর্ক না হলে আগামী দিনে বিপদ হতে পারে। সকলকে মাস্ক পরার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সতর্ক করে বলা হয়েছে, দিনে কম করে চারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। ভিড়ভাড় এলাকা এড়িয়ে যাওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন


টপিকঃ #CoronaVirus

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page