top of page

লকডাউনে গোপনে নাবালিকা বিয়ের চেষ্টা ভেস্তে দিল চাইল্ডলাইন

লকডাউনের আবহে নিভৃতে নাবালিকা মেয়ের বিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। চাইল্ডলাইন সূত্রে খবর পেয়ে বিয়ে রুখে দেয় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। রবিবার চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজার থানার লক্ষ্মীপুর এলাকায়।



লকডাউনে প্রশাসনের যখন দম ফেলার ফুসরত নেই, সেসময় গোপনে মেয়ের বিয়েটা সেরে ফেলতে চেয়েছিলেন বাড়ির লোক। ইংরেজবাজারের কাজিগ্রাম গ্রামপঞ্চায়েতের লক্ষ্মীপুর এলাকার বাসিন্দা এই স্কুল পড়ুয়া। সামাজিক অনুষ্ঠান করে নাবালিকা মেয়ের বিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এই বিয়েতে অমত ছিল স্কুল পড়ুয়ার। ফলে বিধি বাম, শেষ রক্ষা হয় নি। বিষয়টি চাইল্ডলাইনে জানাজানি হতেই ইংরেজবাজার থানায় তরফ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

রবিবার দুপুরে ইংরেজবাজার থানার আইসি মদনমোহন রায়ের নেতৃত্বে পুলিশবাহিনী মেয়েটির বাড়ি যায়। পুলিশের সাথে ছিলেন চাইল্ডলাইনের কর্মীরাও। পুলিশ নাবালিকা মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ি থেকে নিয়ে আসে। ইংরেজবাজার থানার আইসি মদনমোহন রায় জানান, আপাতত মেয়েটিকে চাইল্ডলাইন হাতে তুলে দেওয়া হবে। মেয়েটি এখনও নাবালিকা, বয়স ১৬। আরাপুরের কোনও একটি ছেলের সাথে তার বিয়ের দেওয়ার চেষ্টা চলছিল। সম্পূর্ণ বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।





ঘটনার পর জেলা চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির চেয়ারম্যান চৈতালি সরকার জানান, মেয়েটিকে আপাতত হোমে থাকবে। সেখানে এই নাবালিকার কাউন্সিলিং করার পর আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। পরিবারের তরফে জানান হয়েছে, বিয়ের জন্য তাঁদের মেয়েকে দেখতে এসেছিল আজ। কিন্তু ১৮ বছরের নীচে কোনও মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হলেও অপরাধ। আমরা পরিবার ও স্থানীয় প্রতিবেশীদের সাথেও কথা বলব এবং পুরো ঘটনা তদন্ত করে আগামী দিনে মেয়েটিকে বাড়ি পাঠানো যাবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত প্রশাসনকে জানাব।



টপিকঃ #নাবালিকাবিয়ে

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page