top of page

সিভিক ভলান্টিয়ারের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য

সিভিক ভলান্টিয়ারের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য চাঁচলে৷ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চাঁচল থানার পুলিশ।


মৃত সিভিক ভলান্টিয়ারের নাম মনজির ঔরাঙ্গজেব (৩৪)। বাড়ি চাঁচলের খরবা গ্রামপঞ্চায়েতের গোপালপুর গ্রামে৷ স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পাঁচ বছর আগে মনজির সিভিক ভলান্টিয়ারের চাকরি পান। খরবা ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন তিনি। অভিযোগ, দুই সন্তানের বাবা হওয়ার পরেও খরবা ফাঁড়িতে কর্মরত এক মহিলা সিভিক ভলান্টিয়ার লিলি খাতুনের প্রেমে পড়ে যান তিনি। কিছুদিন আগে লিলির বিবাহবিচ্ছেদ হয়। তবে গত কয়েকদিন ধরে মনজির ওই মহিলা সিভিক ভলান্টিয়ারকে এড়িয়ে যাচ্ছিলেন। স্থানীয়দের দাবি, গতকাল সন্ধেয় লিলি ৪-৫ জনকে সঙ্গে নিয়ে মনজিরের বাড়িতে আসে। ফোন না ধরলে মনজিরকে প্রাণে মারার হুমকিও দিয়ে যান বলে অভিযোগ। এরপর থেকেই মনজিরের আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। আজ সকালে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে একটি আমবাগানে মনজিরের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা।



মনজিরের স্ত্রী রুমা পারভিন জানান, গতকাল সন্ধেয় লিলি বাড়িতে এসে তাঁর স্বামীর খোঁজ করে৷ মনজির বাড়িতে নেই জানালে, ফোনে যোগাযোগ না করতে পারলে রাতেই স্বামীকে খুন করার হুমকি দেয় লিলি। মনজিরের সঙ্গে লিলির প্রেমের সম্পর্ক আছে কিনা তা তাঁর জানা নেই। আজ সকালে জানতে পারি স্বামীকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে। তাঁর অনুমান লিলি তাঁর স্বামীকে খুন করেছে।



চাঁচল থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় এখনও লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। তবে অভিযুক্ত মহিলা সিভিক ভলান্টিয়ারকে আটক করেছে পুলিশ।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page