top of page

মেডিকেলে দালাল চক্র! গ্রেফতার এক অস্থায়ী কর্মী

মালদা মেডিকেল কলেজে দীর্ঘদিন ধরেই দালাল রাজের অভিযোগ ছিল। এবার এক অস্থায়ী কর্মীর বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে টাকা নেওয়ার অভিযোগ জানালেন খোদ মেডিকেল সুপার। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই অস্থায়ী কর্মীকে গ্রেফতার করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।


broker-syndicate-in-medical-college-A-temporary-worker-arrested
মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। ফাইল চিত্র।

মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে মালদা মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগে ভরতি হয়েছিল এক শিশু। গত পরশু ওই শিশুর শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হতে থাকে। সেই সময় চিকিৎসকরা ওই শিশুকে পেডিয়াট্রিক ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে স্থানান্তরিত করে দেন। অভিযোগ, শিশু বিভাগ থেকে পিআইসিইউ বিভাগে শিশুকে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিবারের কাছে বেআইনিভাবে টাকা দাবি করেন এক অস্থায়ী কর্মী। কিন্তু ওই শিশুর পরিবার সেই টাকা দিতে রাজি হননি৷ অবশেষে ওই শিশুর মৃত্যু হয়। এনিয়ে ওই শিশুর পরিবারের লোকজন মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি খতিয়ে দেখে পুলিশে অভিযোগ জানান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ওই অস্থায়ী কর্মীকে গ্রেফতার করে।


মেডিকেল সুপার পূরঞ্জয় সাহা জানান,

এক রোগীর পরিবার এক অস্থায়ী কর্মীর বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে টাকা নেওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছিল৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ পুলিশ ওই কর্মীকে গ্রেফতার করেছে৷ এর আগেও এমন অভিযোগ এসেছে৷ মেডিকেল কলেজের কোনও কর্মীর বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে টাকা নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে সাসপেন্ড করা হয়৷

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page