top of page

৪৮ ঘণ্টা পরও পরিচয়হীন যুবতি, ধানতলার অকুস্থলে গেলেন লকেট

যুবতির মৃতদেহ উদ্ধারের ৪৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত যুবতির পরিচয় জানতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে, মালদায় হরিশ্চন্দ্রপুরের শিশু ধর্ষণের পরে যুবতির দগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধারের পরে দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাস্তায় নামছে শহরবাসী। আজ হরিশ্চন্দ্রপুরের নির্যাতিতা শিশুর সঙ্গে দেখা করে যুবতির মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।



হরিশ্চন্দ্রপুরের শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় গতকাল অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করলেও এখন পর্যন্ত অগ্নিদগ্ধ যুবতির পরিচয় জানতে পারেনি পুলিশ। এদিকে, দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাস্তায় নামছেন রাজনৈতিক নেতা থেকে সাধারণ মানুষ সকলেই। আজ হরিশ্চন্দ্রপুরের নির্যাতিতা শিশুর সঙ্গে দেখা করে যুবতির মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। পরে জেলা বিজেপির মহিলা মোর্চার পক্ষ থেকে ধিক্কার মিছিলে যোগ দেন তিনি।


লকেট চট্টোপাধ্যায়, বিজেপি সাংসদ

"এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা। কাজেই মহিলাদের যদি মুখ্যমন্ত্রী সুরক্ষা না দিতে পারে তাহলে সব মহিলারা তাঁর ওপর থেকে আস্থা হারাবে।"

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সাংসদ বলেন, তিন বছরের শিশুকেও পশ্চিমবাংলায় ধর্ষণ করতে ছাড়ছে না অপরাধীরা। ওই শিশুকন্যার এখনও মালদা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন। ৮ থেকে ১০ দিন আগেই ঘটনাটি ঘটেছে। অভিযুক্ত গ্রেফতার হয়েছে। কিন্তু যে ধরনের শাস্তি পাওয়া উচিত, জানি না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তাকে দেবে কিনা। এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা। কাজেই মহিলাদের যদি মুখ্যমন্ত্রী সুরক্ষা না দিতে পারে তাহলে সব মহিলারা তাঁর ওপর থেকে আস্থা হারাবে। মুখ্যমন্ত্রী চাইছেন নিজের ঘরের বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার। পশ্চিমবঙ্গের নারী নির্যাতন শীর্ষে। তা বিভিন্ন তথ্য থেকে উঠে এসেছে। হায়দ্রাবাদ নিয়ে হৈচৈ হচ্ছে। অথচ মালদার ঘটনাগুলি নিয়ে কোনও কথা হচ্ছে না। ইচ্ছাকৃতভাবে এই ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চলছে।




তিনি আরও বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ওরা পরিবর্তন করতে পারে। আমি এর সাক্ষী আছি। একটা মেয়ের সাথে যা হয়েছে তা কোনরকমভাবে বরদাস্ত করা যায় না। হায়দ্রাবাদ প্রসঙ্গে সাংসদ বলেন, গণতন্ত্র হচ্ছে আসল কথা। দেশবাসী যেখানে খুশি, মানুষ যেখানে খুশি। সেখানে তিনিও খুশি। হায়দ্রাবাদের ঘটনায় নির্যাতিতার আত্মা শান্তি পেয়েছে।


ছবিঃ গৌতম কর্মকার।


প্রতিদিন মালদার টাটকা নিউজ হোয়াটস্ অ্যাপে পেতে ক্লিক করুন

תגובות


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page