top of page

রণক্ষেত্র সুজাপুর, জ্বলল পুলিশের গাড়ি

বন্‌ধ সমর্থকদের উপর কালিয়াচকের সুজাপুরে চলল পুলিশের লাঠিচার্জ। উত্তেজিত জনতাকে সরাতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ। পাশাপাশি পুলিশের গাড়িকে পুড়িয়ে দিল বিক্ষুব্ধ বন্‌ধ সর্মথকরা। সকাল থেকেই মালদায় শুরু হয়েছে বাস ভাঙচুর, বিক্ষোভ৷

বন্‌ধ ঘিরে সকাল থেকেই রণক্ষেত্রের আকার নিল মালদার কালিয়াচক থানার সুজাপুর(#Sujapur) এলাকা। রাস্তা অবরোধ এবং গাড়ি ভাঙচুর ও গাড়িতে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ দেখাল সমর্থকরা। ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে রাখেন বন্‌ধ সমর্থকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। জানা গেছে এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছে। পুলিশ বন্‌ধ সমর্থকদের কাছে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ প্রদর্শনের অনুরোধ জানায়, এতেই শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে গণ্ডগোল। উত্তেজিত জনতা এরপরই গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে। বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় বলেও অভিযোগ। ছোঁড়া হয় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল। এরপরই পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। প্রায় চার ঘণ্টার প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।


#BharatBandh ভিডিয়ো দেখুন



১৭টি গণ সংগঠনের ডাকা বুধবারের ভারত বন্‌ধের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল মালদা জেলা। সকালে শহরের রথবাড়ি এলাকায় সরকারি বাসে হামলা চালায় বিক্ষোভকারীরা। তাঁরা পাথর ছুঁড়ে বাসের কাঁচ ভেঙে দেয়। চাঁচলেও এদিন রাজনৈতিক পারদ ছিল তুঙ্গে। বুধবার এই বন্‌ধকে সফল করে তুলতে চাঁচল বাম ট্রেড ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সাতসকালে চাঁচল নেতাজি স্ট্যান্ডে জমায়েত হয় সমর্থকরা।



আরও খবর


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page