top of page

সরকারি নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগ শাসকদলের বিরুদ্ধে

কোভিডের মরসুমে সরকারি নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগ উঠল শাসকদলের বিরুদ্ধে। আজ হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লকের যুব তৃণমূলের কর্মীসভাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। অভিযোগ, সরকারি নির্দেশের তোয়াক্কা না করেই এই সভা সংগঠিত করা হয়েছে।


দেশ জুড়ে আনলক-থ্রি শুরু হয়েছে। সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী এক স্থানে ৫০ জনের বেশি এক সঙ্গে জমায়েত করা যাবে না। অথচ আজ হরিশ্চন্দ্রপুরের কর্মীসভায় প্রায় দুই হাজারের বেশি মানুষের জমায়েত করা হয়েছে বলে অভিযোগ। যুব তৃণমূলের মালদা জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ দাস, হরিশ্চন্দ্রপুর বিধানসভার প্রাক্তন বিধায়ক তথা তৃণমূল নেতা তাজমুল হোসেনের উপস্থিতিতেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা।



স্থানীয়দের একাংশ ও বিরোধীদের দলনেতাদের অভিযোগ, প্রায় দুই হাজার কর্মীদের জমায়েত করে এই কর্মীসভা সংগঠিত করা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব তো দূরের কথা এমনকি কর্মীদের বেশিরভাগের মুখেই মাস্ক দেখা যায়নি।




হরিশ্চন্দ্রপুর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মফিজুদ্দিন আহমেদ বলেন, রাজ্য তথা জেলা জুড়ে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ বাড়ছে। হরিশ্চন্দ্রপুরেও দিনের পর দিন বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দলের কর্মসূচিতে যে ছবি দেখা যাচ্ছে তা কাম্য নয়। এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দলগুলিকে জমায়েত বন্ধ রাখা উচিত।


মালদা জেলার টাটকা নিউজ এখন আমাদের অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে। বিনামূল্যে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page