top of page

টানা বৃষ্টিতে গঙ্গার পর ভাঙন মহানন্দায়, আতঙ্কে এলাকাবাসী

গঙ্গা ও ফুলহর নদী ভাঙনের পর এবার মহানন্দায় ভাঙনের আতঙ্ক। গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টির ফলে জল বেড়েছে মহানন্দা নদীতে। হঠাৎ নদীর জল বেড়ে যাওয়ার ফলে শুরু হয়েছে ভাঙন। গঙ্গা ও ফুলহর নদীর পর এবার মহানন্দা নদীর ভাঙ্গনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে নদী তীরবর্তী মানুষদের মনে।


After Ganges and Fulhar, Panic of eruption in Mahananda


চাঁচল ২ ব্লকের চন্দ্রপাড়া গ্রামপঞ্চায়েতের যদুপুর গ্রাম। ওই গ্রামের উত্তরপাড়ার পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে মহানন্দা নদী। গত কয়েকদিন বৃষ্টির ফলে ভয়ানক আকার ধারণ করেছে মহানন্দা। নদীর জল বাড়ার ফলে যদুপুরের উত্তরপাড়া এলাকায় দেখা দিয়েছে নদীর পাড়ে ভাঙন। ভাঙনের ফলে ইতিমধ্যে তীরবর্তী এলাকার কয়েকশো বিঘা কৃষিজমি গ্রাস করেছে নদী। জমি নদীতে তলিয়ে যাওয়ার ফলে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে কয়েকশো পরিবারে। কিছু জমির পাশাপাশি এখন ভাঙন শুরু হয়েছে গ্রামের দিকে। গ্রাম থেকে মাত্র ২৫ মিটার দূরেই ভাঙনের তাণ্ডবলীলা দেখাচ্ছে মহানন্দা।


ওই গ্রামের বাসিন্দারা জানান, যদুপুর গ্রামে ভাঙনের সমস্যা দীর্ঘদিনের। এর আগে আমরা এই ভাঙন প্রতিরোধ নিয়ে প্রশাসনকে জানানো হয়েছিল। অনেকে এসে দেখে ঘুরে গিয়েছেন কিন্তু কোনও সমস্যার সমাধান হয়নি। বহু মানুষের ঘর নদীগর্ভে তলিয়ে গিয়েছে। অথচ প্রশাসনের তরফ থেকে এখনও সাহায্য করা হয়নি। নতুন করে ভাঙন শুরু হওয়ায় আতঙ্কে রয়েছে গ্রামের বাসিন্দারা। নদী তীরবর্তী এলাকার বেশ কিছু এলাকা রাতের মধ্যেই নদীগর্ভে তলিয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন গ্রামবাসীরা।




এদিকে ওই এলাকার ভাঙনের খবর শুনতে পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন মালতিপুর বিধানসভার প্রাক্তন বিধায়ক আবদুর রহিম বকশি। তিনি ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করার পর গ্রামবাসীদের সাথে কথা বলেন। বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page