top of page

দেওরের সাহায্যে স্বামীকে নৃশংসভাবে খুন করল স্ত্রী

পিসতুতো দেওরের সহযোগিতায় হাত-পা বেঁধে, মাথা থেঁতলে স্বামীকে খুন করল স্ত্রী। মৃতদেহ উদ্ধার করে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায়। পরকীয়া নাকি সম্পত্তি হাতাতে এই অপরাধ তা নিয়ে ধন্দে এলাকাবাসী।



মৃত ব্যক্তির নাম রাম মুসহর (৩৭)। বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুর থানা সংলগ্ন এলাকায়। রামবাবু রংমিস্ত্রির কাজ করতেন। জানা গিয়েছে, মদ্যপান করে বাড়ি ফেরার কারণে প্রায়শই স্ত্রী পঞ্চমীর সঙ্গে অশান্তি লেগে থাকত রামবাবুর। কয়েকদিন আগে পঞ্চমীদেবীর পিসতুতো দেওর, মনোজ দিল্লি থেকে হরিশ্চন্দ্রপুরে এসে রামবাবুদের সঙ্গে থাকতে শুরু করেন। রামবাবুর সঙ্গে রংয়ের কাজেও যোগ দেন। ধীরে ধীরে পঞ্চমীদেবীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক তৈরি হয় মনোজের। বিষয়টি জানতে পেরে কাজকর্ম ছেড়ে আরও বেশি মদ্যপান করতে থাকেন রামবাবুও। এরপরেই মনোজ ও পঞ্চমী, রামবাবুর পৈতৃক বাড়ি বিক্রি করে দিল্লি চলে যাওয়ার পরিকল্পনা করে। গতকাল রাতে, মনোজ রামবাবুর ছেলেকে অসুস্থতার বাহানায় গাড়ি ডেকে আনতে বলে। রামবাবুর ছেলেকে গাড়ি খোঁজ করতে দেখে প্রতিবেশীরা তাদের বাড়িতে যান। প্রতিবেশীদের নজরে আসে, হাত-পা বেঁধে, মাথা থেঁতলানো অবস্থায় রামবাবুর মৃতদেহ লুকিয়ে রাখা হয়েছে। প্রতিবেশীদের থেকে বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে মনোজ ও পঞ্চমীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page