top of page

আদিবাসীদের অবরোধে ৬ ঘণ্টা বিপর্যস্ত ট্রেন পরিসেবা, সমস্যায় যাত্রীরা

ছয় দফা দাবিতে শনিবার সকাল থেকে রেল অবরোধ করেন আদিবাসীরা। মালদার আদিনা স্টেশনে আদিবাসী সেঙ্গেল অভিযানের নেতৃত্বে অবরোধে সামিল হন কয়েকশো আদিবাসী। অবরোধের জেরে আটকে পড়ে বহু ট্রেন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আদিনা স্টেশনে দেখা যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী এবং আরপিএফ ফোর্স৷ সকাল সাড়ে সাতটা থেকে দুপুর ১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত চলে অবরোধ। অবরোধের জেরে সমস্যায় পড়েন যাত্রীরা।


নিজেদের সারনা ধর্মের কলাম কোড, মারাং বুরুর বসবাসের স্থান হিসাবে চিহ্নিত পরেশনাথ পাহাড়কে আদিবাসীদের হাতে তুলে দেওয়া সহ মোট ছয় দফা দাবিতে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আদিবাসী সমাজ। আজ থেকেই তারা বিভিন্ন রাজ্যে রেল-রোড চাক্কা জ্যাম কর্মসূচি নিয়েছে৷ সেই কর্মসূচির আওতায় আজ সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ আদিবাসী সেঙ্গেল অভিযানের নেতৃত্ব উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের আদিনা স্টেশনে আদিবাসীরা রেল অবরোধ করে৷ বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে আদিবাসীদের ভিড়ও। সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ রেলের কর্তারা ১০ মিনিটের মধ্যে অবরোধ তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেন৷ কিন্তু তাঁদের নির্দেশ না মেনে আদিবাসীদের তরফে পালটা হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়, পুলিশ কিংবা আরপিএফ জোর করে এই অবরোধ তুলতে গেলে যদি আইনশৃঙ্খলার কোনও অবনতি হয়, তার জন্য দায়ী থাকবে প্রশাসনই৷


পরেশনাথ পাহাড়ে অধিষ্ঠিত মারাং বুরু নিয়ে সরব আদিবাসীরা


আদিবাসীদের সারনা ধর্ম কোডকে ভারতীয় সংবিধানে অন্তর্ভূক্তির দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন চালাচ্ছেন আদিবাসীরা। একাধিকবার অবরোধ, ঘেরাও কর্মসূচির পরেও তাঁদের দাবি পূরণ হয়নি। সম্প্রতি ঝাড়খণ্ডের গিরিডি জেলার পরেশনাথ পাহাড়ে অধিষ্ঠিত মারাং বুরু নিয়েও সরব হয়েছেন আদিবাসীরা। তাঁদের দাবি, সেই পাহাড়টি জৈন সম্প্রদায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে৷ অথচ সেই পাহাড়টি আদিবাসীদের বলেই আইনে স্বীকৃত৷ ১৯১১ সালে এনিয়ে একটি মামলাও হয়৷ সেই মামলায় আদিবাসীদের পক্ষে রায় হয়৷ তারপরেও ওই পাহাড়টি জৈনদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।



আদিবাসী সেঙ্গেল অভিযানের উত্তরবঙ্গ জোনের সভাপতি মোহন হাঁসদা জানান,

সারনা ধর্মের কোড, মারাং বুরুর বাসভূমি পরেশনাথ পাহাড় সহ মোট ছ’দফা দাবিতে আজ পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, বিহার, ওড়িশা ও অসমে রেল অবরোধ করা হচ্ছে। সারনা ধর্মের পৃথক কলম কোডের দাবিতে তাঁদের এই আন্দোলন দীর্ঘদিন ধরে চলছে৷ এরপরেও দাবি পূরণ না হলে আগামী ১১ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য রেল ও জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হবে।

আদিবাসীদের রেল অবরোধের জেরে বিভিন্ন স্টেশনে আটকে পড়ে বেশ কয়েকটি ট্রেন৷ সামসী স্টেশনে দাঁড়িয়ে পড়ে শতাব্দী এক্সপ্রেস। প্রথমে ফরাক্কা পরে মালদা স্টেশনে আটকে যায় বন্দেভারত এক্সপ্রেস। জামিরঘাটা স্টেশনে ত্রিবান্দ্রম-তিনসুকিয়া এক্সপ্রেস, মালদা স্টেশনে মালদা-বালুরঘাট প্যাসেঞ্জার এবং মালদা-কাটিহার প্যাসেঞ্জার, গৌড় মালদা স্টেশনে নবদ্বীপ ধাম-মালদা, একলাখি স্টেশনে বালুরঘাট-কলকাতা তেভাগা এক্সপ্রেস এবং কুমারগঞ্জ স্টেশনে আটকে পড়ে কুলিক এক্সপ্রেস৷ বিভিন্ন স্টেশনে বিভিন্ন ট্রেন আটকে পড়ায় চরম সমস্যায় পড়তে হয় যাত্রীদের।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page