top of page

সরকারি গাড়ি আটকে বিক্ষোভ টোটো চালকদের

মালদা শহরে গ্রামীণ এলাকার টোটো চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পর এবার সরাসরি প্রশাসনের সঙ্গে সংঘাতে রাস্তায় নামল টোটো চালকেরা। চেয়ারম্যানের গাড়ি সহ সরকারি গাড়ি আটকে চলতে থাকে বিক্ষোভ। মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুরাতন মালদার থানার সাহাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সেতু মোড় এলাকা। ঘটনাস্থলে পুরাতন মালদা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে আলোচনার মাধ্যমে অবরোধ তুলে দেয়।



উল্লেখ্য, মালদা শহরের যানজট নিয়ন্ত্রণ করতে গত ৫ জুলাই থেকে শহরের মধ্যে গ্রামীণ এলাকার টোটো (#Toto) চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে প্রশাসন। এরপর থেকে দফায় দফায় শুরু হয় গ্রামীণ এলাকার টোটো চালকদের বিক্ষোভ। বিভিন্ন এলাকায় পৃথকভাবে রাস্তা অবরোধ করা হয়। গতকাল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সর্বদলীয় একটি বৈঠক করে প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্তারা। কিন্তু সেখানেও গ্রামীণ এলাকার টোটো চলাচলের বিষয়ে নির্দিষ্টভাবে কোনও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়নি। আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে শহরকেন্দ্রিক গ্রামীণ এলাকার শতাধিক টোটো চালকেরা। এদিন সকালে সেতুমোড় এলাকায় ইংরেজবাজার পুরসভার আবর্জনা ফেলার গাড়ি আটক করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে টোটো চালকরা। পরে ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যানের গাড়ি এবং জেলা প্রশাসনের একটি সরকারি গাড়ি আটকে বিক্ষোভ দেখান টোটো চালকেরা। যদিও ওই গাড়িতে চেয়ারম্যান বা প্রশাসনের কোনও কর্তারা সেই সময় ছিলেন না। অবশেষে বিশাল পুলিশবাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছন ডিএনটি ডিএসপি শ্যামলকুমার মণ্ডল। তিনি ক্ষিপ্ত টোটো চালকদের আলোচনা করে অবরোধ তুলে দেন।


এই বিষয়ে পুরাতন মালদা পুরসভার চেয়ারম্যান কার্তিক ঘোষ জানান, টোটো ভাইদের প্রতি প্রশাসনের যথেষ্ট নজর রয়েছে। ইতিমধ্যে প্রশাসন সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে এই বিষয়ে মিটিং করেছে। খুব শীঘ্রই তাঁদের সমস্যার সমাধান হবে।


প্রতিদিন মালদার টাটকা নিউজ হোয়াটস্ অ্যাপে পেতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page