top of page

যেন সিনেমা! চাঁচলে চলল ডাকাতদলের তাণ্ডব

ঠিক যেন হলিউড সিনেমার ক্রাইম সিন। পারফেক্ট প্ল্যানিং, পারফেক্ট টাইমিং। আছে আত্মগোপন রাখার জন্য সঠিক সরঞ্জাম। এমনই ভয়ানক ডাকাতির সাক্ষী থাকল চাঁচলবাসী। সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়ল চার দুষ্কৃতীর ১২ লক্ষ টাকা হাতানোর ঘটনা। সেই ফুটেজ দেখেই আপাতত দোষীদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চাঁচলে।


চাঁচলের শান্তি মোড়ে একটি অনলাইন সংস্থার অফিস ও গুদাম রয়েছে। অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের টাকা ওই অফিসেই জমা হয়। গতকাল রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ দুটি মোটরবাইকে করে চারজন ওই অফিসের সামনে আসে। অফিসের ভিতরে ঢুকেই অফিসের কর্মীদের পিস্তল দেখিয়ে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। ওই সময় কর্মীরা ব্যবসার টাকার হিসেব করছিলেন। দুষ্কৃতীরা কয়েকজন কর্মীকে বেঁধে সমস্ত টাকা ব্যাগে করে নিয়ে চম্পট দেয়। দুষ্কৃতীরা অফিস থেকে বেরোতেই সংস্থার কর্মীরা চাঁচল থানায় ফোন করে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে অফিসে ছুটে আসেন চাঁচল থানার আইসি ও এসডিপিও। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে দোষীদের শনাক্ত করার কাজ শুরু হয়েছে।


অফিসের এক কর্মী নুর আলম জানান,

ঘটনার সময় টাকার হিসেব প্রায় শেষ হয়ে এসেছিল। ক্যাশ লকারে রাখার কাজটা বাকি ছিল। সেই সময় পিস্তল হাতে চারজন অফিসে আসে। সকলের মুখে মাস্ক ও চোখে চশমা ছিল। প্রাণের হুমকি দিয়ে ওরা প্রায় ১২ লক্ষ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।


চাঁচল থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সিসি টিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখে দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। তবে প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারণা, স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে বিহারের দুষ্কৃতীরাও এই ডাকাতির ঘটনায় জড়িত রয়েছে।



ঘটনার খবর পেয়ে আজ দুপুরে ঘটনাস্থলে তদন্তে আসেন মালদা জেলার অতিরিক্ত পুলিশসুপার অমিত কুমার সাউ। দীর্ঘদিন তিনি ঘটনাস্থল খতিয়ে দেখার পাশাপাশি ওই অফিসের কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি জানান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করার কাজ চলছে। দ্রুত দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করা হবে।



আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page