top of page

পঞ্চায়েত সমিতির দলীয় সভাপতিকে অপসারণ তৃণমূল সদস্যদের

ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙল ঘাসফুল পরিবারের সদস্যরাই। পদ্ম শিবিরের পাঁচ সদস্যের হাত ধরে আজ কালিয়াচক ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিকে অপসারণ করেছেন তৃণমূলের সাত সদস্য। এই কাজে তাঁদের সঙ্গ দিয়েছেন সিপিএম ও সিপিআইয়ের একজন করে সদস্যও। ফলে ২২ সদস্যবিশিষ্ট এই পঞ্চায়েত সমিতিতে সংখ্যালঘিষ্ঠ হয়ে পড়ায় সভাপতির পদ খুইয়েছেন টিংকু রহমান বিশ্বাস। ১৪-০ ভোটে আজ তাঁকে অপসৃত হতে হয়েছে। শাসকদলের রাজনীতিতে সাবিনা বিরোধী এই নেতার অপসারণে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলা তৃণমূলের অন্দরে। এনিয়ে নাম না করে সাবিনার উদ্দেশ্যে তোপ দেগেছেন টিংকু। তবে ঘটনার প্রেক্ষিতে কোনও মন্তব্য করেননি সাবিনা।


জেলা তৃণমূলের রাজনীতিতে দীর্ঘদিন ধরেই সাবিনা ইয়াসমিন ও টিংকু রহমান বিশ্বাসের দ্বন্দ্ব চলছিল। বিধানসভা ভোটের মুখে সেই দ্বন্দ্ব তীব্র আকার নেয়। কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি ও ভোটে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কাজ করার অভিযোগ এনে টিংকুর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসেন পঞ্চায়েত সমিতির ১৪ জন সদস্য। এর মধ্যে ছিলেন তৃণমূলের সাত, কংগ্রেসের দুই এবং সিপিএম ও সিপিআইয়ের একজন করে সদস্য। অনাস্থা প্রস্তাবের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন টিংকু। কিন্তু হাইকোর্ট এই প্রক্রিয়া জারি রাখার নির্দেশ দেয়। তারই প্রেক্ষিতে আজ অনাস্থার তলবি সভা আয়োজিত হয়। ১৪-০ ভোটে সভাপতি বিরোধীরা জয়লাভ করেন। সভাপতির পক্ষের কেউ আজ সভায় উপস্থিত থাকেননি।



আজ টিংকু দাবি করেন, তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। কেউ পিছন থেকে এই কাজ করেছে। তিনি তাকে সামনে আসার আহ্বান জানাচ্ছেন। জেলা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ঠিক কোন জায়গায় গিয়েছে, আজকের ঘটনা তার উদাহরণ। তবে দলনেত্রীর প্রতি তাঁর আস্থা রয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখেই তিনি আগামীতে দলের কাজ করে যাবেন। তবে এনিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি এলাকার বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন। তিনি সাফ জানান, এটা পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যদের বিষয়। তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না।



কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের বিডিও রামল সিং বিরদী জানিয়েছেন, আজ তলবি সভায় ১৪-০ ভোটে সভাপতি বিরোধীরা জয়লাভ করেছেন। ফলে এই পঞ্চায়েত সভাপতির পদ থেকে টিংকু রহমান বিশ্বাস অপসারিত হয়েছেন। আগামী ১০ দিনের মধ্যে সভা করে পরবর্তী সভাপতি নির্বাচন করা হবে।



আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page