top of page

রাস্তার দাবিতে ভোট বয়কটের হুমকি

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে আওয়াজ উঠেছে রাস্তা দাও, ভোট নাও। বারবার আশ্বাস মেলার পরও কাজ না হওয়ায় পথ অবরোধও করেন স্থানীয় মানুষজন। এমনই ছবি দেখা গেল চাঁচল-১ নম্বর ব্লকের চাঁচল গ্রামপঞ্চায়েতের শিহিপুর নগাছিয়া গ্রামে।


এলাকাবাসীর অভিযোগ, শিহিপুর নগাছিয়া গ্রামের মূল রাস্তায় গত পঞ্চায়েত ভোটের সময় ছোটো ইটের টুকরো ফেলা হয়েছিল। সকলেরই মনে হয়েছিল হয়তো এবার পাকা রাস্তা হবে। কিন্তু ওই শেষ। রাস্তা আর পাকা হয়নি। এখন সেই ইটের টুকরোর রাস্তাও আর নেই। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তায় জমছে জল-কাদা। প্রায় প্রতিদিনই ঘটে দুর্ঘটনা। এই রাস্তা দিয়ে গ্রামে অ্যাম্বুলেন্সও ঢুকতে চায় না। তাই এবার রাস্তার সংস্কার না হলে পঞ্চায়েত ভোট থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।



স্থানীয় এক বাসিন্দা বাসুদেব দাস জানান, গ্রামে রাস্তা নেই। ড্রেন নেই। প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকা জল-কাদা পেরিয়ে যাতায়াত করতে হয়। রাস্তা-ড্রেন না করা হলে এবার এলাকার কেউ পঞ্চায়েত ভোটে অংশগ্রহণ করবে না। প্রতিবার ভোটের আগে শুধু প্রতিশ্রুতিই পাওয়া যায়। ভোট মিটলে প্রতিশ্রুতির কথা কেউ মনে রাখেনি। এই এলাকার এক মহিলা শিপ্রা চক্রবর্তী জানান, বেহাল রাস্তা দিয়ে রোগী নিয়ে যাওয়া যায় না। বাচ্চারা স্কুলে যেতে পারে না। ভোটের আগে নেতাদের সবার মুখে প্রতিশ্রুতি শোনা যায়। ভোট মিটতেই কারো দেখা মেলে না। যতক্ষণ না গ্রামে রাস্তা আর ড্রেন হচ্ছে, ততক্ষণ এলাকার কেউ ভোট দেবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।


পঞ্চায়েতের উপপ্রধান উৎপল তালুকদার জানিয়েছেন, ওই গ্রামের রাস্তার টেন্ডার হয়ে গিয়েছে। বর্ষার আগেই কাজ শুরু হবে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page