top of page

বেতনের টাকা পকেটে, পথ আটকাল দুষ্কৃতীরা

এক দিনমজুর যুবককে মারধর করে ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠল ৫ যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে হরিশ্চন্দ্রপুরের হলদিবাড়ি লাগোয়া বাগান এলাকায়।


আক্রান্ত যুবকের নাম পচা দাস। বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুরের হলদিবাড়ি বাগান এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে হলদিবাড়ির বাসিন্দা পচা কাজ করে বাড়ি ফিরছিল। অভিযোগ, সেই সময় কয়েকজন মদ্যপ যুবক তাঁর পথ আটকায়। সাইকেল থেকে নামিয়ে বাঁশ, লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে সঙ্গে থাকা ১০ হাজার টাকা, সোনার মালা ও রুপোর আংটি ছিনিয়ে নেয় দুষ্কৃতীরা। চিৎকারে স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থলে ছুটে এলে দুষ্কৃতীরা মোটরসাইকেলে চেপে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা পচাকে উদ্ধার করে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করে।



ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী একটি বারের মালিক রাহুল প্রামাণিক জানান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দু’জনকে চিহ্নিত করা গেছে। একজন বাপন ঘোষ ও অন্যজন হিরা প্রামাণিক। দুজনেরই বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুরের সুলতান নগর গ্রামপঞ্চায়েতে। ওই ছেলেটিকে মারধরের ভিডিয়ো ফুটেজে ধরা পড়েছে। সেই ফুটেজ তিনি পুলিশে জমা দিয়েছেন।


পচা দাস জানান, তিনি হরিশ্চন্দ্রপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন কার্তিকের মিষ্টির দোকানে কাজ করেন। রাতে বেতন পেয়েছিলেন তিনি। বেতন নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে পাঁচজন মদ্যপ যুবক তার পথ আটকায়। তাঁকে বেধড়ক মারধর করার পরে সমস্ত টাকা ছিনিয়ে নেয়। স্থানীয় গ্রামবাসীরা ছুটে এলে তিনি রক্ষা পান। এই এলাকায় প্রতিদিনই মদ্যপদের অত্যাচার বাড়ছে। দিনের বেলাতেও মানুষজন এই এলাকা দিয়ে যেতে ভয় পাচ্ছে।


এপ্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয়কুমার দাস জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযুক্তদের খোঁজে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page