top of page

দেড় বছর ধরে বেতন বন্ধ, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন অস্থায়ী কর্মীদের

১৯ মাস ধরে বেতন বন্ধ থাকায় সমস্যায় অস্থায়ী কর্মীরা। ইতিমধ্যে আর্থিক অভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে মৃত্যু হয়েছে এক অস্থায়ী কর্মীর। বহু পরিবারে প্রতিদিন খাওয়ার জুটছে না। বন্ধ হয়ে গিয়েছে ছেলেমেয়েদের শিক্ষাও। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন ইংরেজবাজারের বড়ো সাগরদিঘির অস্থায়ী কর্মীরা।


অস্থায়ী কর্মীদের অভিযোগ, বর্তমানে সাগরদিঘিতে ১৫ জন অস্থায়ী কর্মী কাজ করেন। তাঁদের রাতে পাড়া দেওয়া, জাল টানা, মাছের খাবার দেওয়া সমস্ত কাজ করতে হয়। অথচ দীর্ঘ ১৯ মাস ধরে তাঁদের বেতন বন্ধ হয়ে রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সমস্যায় পড়েছেন ওই কর্মীরা। কর্মীদের দাবি, বেতন না থাকায় তাঁদের প্রতিদিন খাবার জুটছে না। তাঁদের ছেলেমেয়েদের শিক্ষা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এক কর্মী আর্থিক অভাবে চিকিৎসা না করাতে পেরে মারা গিয়েছেন। নিজেদের সমস্যার কথা তাঁরা বারবার জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ, পঞ্চায়েত সমিতিতে জানিয়েছেন। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। এবার সংবাদমাধ্যের মাধ্যমের মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হচ্ছেন ওই অস্থায়ী কর্মীরা।



ইংরেজবাজার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রাজেশ পাল জানান, অস্থায়ী কর্মীরা বিষয়টি তাঁকে জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি সংশ্লিষ্ট দফতরে যোগাযোগ করেছেন। দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page