top of page

শ্রমিকদের মৃতদেহ ফিরল মালদায়, রাজ্যপালকে ‘পদ্মপাল’ বলে কটাক্ষ সাবিনার

মিজোরামে সেতু দুর্ঘটনায় মৃত শ্রমিকদের দেহ ফিরল মালদায়। গতকাল রাত ও আজ সকাল মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট ২২জনের মৃতদেহ এসেছে। আগামীকাল আরও এক মৃতদেহ আসার কথা রয়েছে। জেলা প্রশাসনের তরফে মৃতদেহগুলি পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তবে মৃতদেহ সংরক্ষণ নিয়ে রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্য সাংসদ ও মন্ত্রী। রাজ্যপালকে পদ্মপাল বলেও কটাক্ষ করেন মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন।


উল্লেখ্য, গত বুধবার মিজোরামে নির্মীয়মান রেল সেতু দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় মালদার ২৩ জন শ্রমিকের। গতকাল সন্ধেয় দুর্ঘটনায় মৃত ১৮জন শ্রমিকের দেহ মালদা মেডিকেলে এসে পৌঁছয়। মালদা মেডিকেলে জেলা প্রশাসনের তরফে যাবতীয় প্রক্রিয়ার পর মৃতদেহগুলি পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়। আজ দুপুরে আরও চার শ্রমিকের মৃতদেহ এসে পৌঁছয়। মৃতদেহ পাঠানো নিয়ে রেল দফতরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন ওয়েস্ট বেঙ্গল মাইগ্রেন্ট লেবার ওয়েলফেয়ার বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা রাজ্যসভার সাংসদ সামিরুল ইসলাম ও মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন।



তাঁদের অভিযোগ, রেল দফতর অমানবিক কাজ করেছে। দায় সারা কাজ করে মৃতদেহগুলিকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই কারণে কফিন থকে রক্ত পড়ছে, দুর্গন্ধে থাকা যাচ্ছে না। গতকাল রাতে রেলের অফিসারকে এনিয়ে অভিযোগ জানানোর পরও আজ সেভাবেই মৃতদেহ পাঠানো হয়েছে। এনিয়ে তাঁরা রেলমন্ত্রকে লিখিত অভিযোগ জানাবেন।


সাবিনা ইয়াসমিন বলেন,

রেল দফতর দায় সারা কাজ করেছে। বিজেপির জনপ্রতিনিধিরা মুখ লুকিয়ে বসে রয়েছেন। জনতার রোষ থেকে বাঁচতে রাজ্যপালকে পদ্মপালের ভূমিকায় মালদায় পাঠিয়েছেন। গতকাল মৃতদেহগুলি মালদায় এসে পৌঁছনোর সময় উনি মালদায় থাকলেও একবারের জন্য উনি শ্রমিকদের শ্রদ্ধা জানাতে আসেননি।

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page