top of page

মালদায় ৫০ শতাংশ ভোট পাবে তৃণমূলঃ শুভেন্দু

তৃণমূলের দক্ষিণ মালদার প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেনের সমর্থনে নির্বাচনি সভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ মানিকচকে এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন দুই প্রাক্তন মন্ত্রী সাবিত্রী মিত্র, কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরি, গৌরচন্দ্র মণ্ডল, সমর মুখোপাধ্যায় সহ আরও অনেক নেতৃত্ব।


এদিনের নির্বাচনি জনসভা কার্যত ফ্লপ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল

শুভেন্দুবাবু বলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের যে ফল হয়েছে সেটা সকলেই জানে। যে সকল মানুষ ধর্মনিরপেক্ষ এবং উন্নয়ন চান তাঁরা জোড়া ফুলেই ভোট দেবে। আর যারা দাঙ্গা চায়, তারা কোথায় ভোট দেবে সেটাও সকলে জানে। দক্ষিণ মালদার বর্তমান সাংসদ শুধু মাত্র ভোট কাটতে নির্বাচন লড়ছেন। লোকসভায় পশ্চিমবঙ্গে দুটো দলের মধ্যেই লড়াই হবে। মালদার দুটো কেন্দ্রেই তৃণমূলের প্রার্থী মুসলিম, এ প্রসঙ্গে শুভেন্দুবাবু বলেন, তৃণমূল ধর্মের রাজনীতি করে না। ২০১৪ তে মালদায় ২০ শতাংশ ভোট পেয়েছিল তৃণমূল, ২০১৬ তে ৩০ শতাংশ, ২০১৮তে ৪৬ শতাংশ এবারে সেটা ৫০ শতাংশ অতিক্রম করবে।


তিনি আরও বলেন, মানিকচকের এতগুলো লোক ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে মারা গেলেন৷ কিন্তু এখানকার সাংসদকে তখন দেখা যায়নি৷ এই লোকগুলো নির্বাচনের সময় মানুষকে বিভ্রান্ত করতে আসে৷ আর বিজেপি যে কথা বলে ক্ষমতায় এসেছিল, তার কী দিয়েছে? নোটবন্দি, জিএসটিতে কার লাভ হয়েছে? কিছু করতে পারেনি বলে তারা এখন দেশপ্রেমের কথা, হিন্দুত্বের কথা বলছে।


এদিনের নির্বাচনি জনসভা কার্যত ফ্লপ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷ সকাল ১১টায় সভা শুরু করার কথা থাকলেও মাঠ না ভরায় শুভেন্দুবাবু সভায় আসেন প্রায় সোয়া দুটো নাগাদ৷ তখনও সভাস্থল পুরোপুরি ভরেনি৷ এনায়েতপুরের বিশাল ময়দানের মাঝে প্যান্ডেল করে চারিদিক ঘিরে ফেলা হয়েছিল। তাতেও ভরানো যায়নি সভাস্থল। পরে সভাস্থল ভরাতে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঠে আনতে শুরু করে তৃণমূল কর্মীরা। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হয়নি।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page