top of page

রাহুল গান্ধির সভা ভেস্তে দিতে চাইছে প্রশাসন: কংগ্রেস

কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধির জনসভা ভেস্তে দেওয়ার চেষ্টা করছে প্রশাসন৷ সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই অভিযোগ করলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোস্তাক আলম৷


চাঁচলের মহকুমাশাসকের শর্ত, রাহুল গান্ধির জনসভায় মাইক ব্যবহার করা যাবে না

আগামী ২৩ জানুয়ারি রাজ্যে নির্বাচনি প্রচারে আসছেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধি (RahulGandhi)৷ প্রথমে এই সভা হওয়ার কথা ছিল ১৫ মার্চ৷ কিন্তু হেলিপ্যাড সহ আরও কিছু সমস্যার জন্য সভাটি ৭ দিন পিছিয়ে যায়৷

সাংবাদিক সম্মেলনে জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোস্তাক আলম বলেন, রাহুল গান্ধির সভার অনুমতির জন্য জেলা নির্বাচনি আধিকারিক অর্থাৎ জেলাশাসকের কাছে গেলে তিনি মহকুমাশাসকের কাছে যেতে বলেন। চাঁচলের মহকুমাশাসক অনুমতি দিয়েছেন৷ তবে তাঁর শর্ত হল, রাহুল গান্ধির জনসভায় মাইক ব্যবহার করা যাবে না৷ এর কারণ হিসেবে মহকুমাশাসক জানিয়েছেন, কোনও পরীক্ষার তিনদিন আগে থেকে কোনও মাইক বাজানো যাবে না৷ অথচ মুর্শিদাবাদে রাজ্য সরকারের দুই মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, ফিরহাদ হাকিম এবং বহু চর্চিত অনুব্রত মণ্ডল জনসভা করেছেন৷ গতকাল উত্তর দিনাজপুরে রাজ্য বামফ্রন্টের সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র সভা করেছেন৷ ২৫ মার্চ আলিপুরদুয়ারে মুখ্যমন্ত্রী সভা করতে যাচ্ছেন৷ ইতিমধ্যে সেখানে সাজো সাজো রব চলছে৷


মোস্তাক সাহেব আরও বলেন, তাঁরা বুঝতে পারছেন রাজ্য সরকার ও তৃণমূল একজোট হয়ে মালদায় রাহুল গান্ধির সভা বানচাল করার জন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে৷ অন্যান্য জেলাগুলিতে মন্ত্রীরা মাইক বাজিয়ে সভা করতে পারলে মালদায় রাহুল গান্ধির সভা হবে না কেন? লিখিতভাবে প্রশাসনকে জানানো হয়েছে, চাঁচল মহকুমায় এখন কোনও পরীক্ষা নেই৷ ১৩ কিলোমিটার দূরে সামসিতে সিবিএসই'র একটি স্কুল থাকলেও সেখানে পরীক্ষা নেই৷ ৬৫ কিলোমিটার দূরে মালদায় সিবিএসই'র পরীক্ষা আছে৷ প্রশাসনের এই ষড়যন্ত্র নিয়ে তাঁরা নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হতে চলেছেন।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন



বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page