top of page

আগে সুরক্ষা, পরে ভোট৷ দাবিতে অনড় ভোটকর্মীরা

এদিন আবার সরকারি কর্মচারীরা জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে জমায়েত হয়ে জেলাশাসকের কাছে একটি দাবিপত্র তুলে দিলেন। এই লোকসভা নির্বাচনে প্রতিটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করতে হবে। সেই দাবিতে তাঁরা এদিন বিকালে মালদা শহরে মিছিল করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে জমায়েত হন।


তৃতীয় দফার ট্রেনিংয়ের আগে তাঁদের কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন প্রসঙ্গে নিশ্চয়তা দিতে হবে

মানিকচকের এক স্কুল শিক্ষক, উৎপল গোস্বামী জানালেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে তাঁদের তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে। প্রতি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন না করা হলে অশান্তির যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে। বিগত নির্বাচনগুলির অভিজ্ঞতা অনুযায়ী শুধু রাজ্য পুলিশ দিয়ে ভোট করলে ভোটকর্মীরা সঠিক নিরাপত্তা পাবেনা। তাঁদের দাবি, তৃতীয় দফার ট্রেনিংয়ের আগে তাঁদের কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন প্রসঙ্গে নিশ্চয়তা দিতে হবে। অন্যথায় ভোট পরিচালনার সমস্ত কাজ থেকে তাঁরা বিরত হবেন। তাঁরা ভোটের ট্রেনিং নিতেও অস্বীকার করেছেন।


আরেকজন সুজাপুর হাইস্কুলের সহশিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ স্বর্ণকার গত পঞ্চায়েত ভোটে নিহত রাজকুমার রায়ের প্রসঙ্গ তুলে বললেন আমাদের পরিবার তখন সুরক্ষিত হবে, যখন আমরা সুস্থভাবে বাড়ি ফিরব। ভোটগ্রহণ আমাদের দায়িত্ব। আমরা চাই এই ভোটে যেন সবার মুখে হাসি বজায় থাকে। তাই আমরা নিরাপত্তা চেয়ে শতাধিক সরকারি কর্মচারী জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে জমায়েত হয়েছি। একটি দাবি সম্বলিত পত্র আমরা জেলাশাসকের হাতে তুলে দেব।


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page