top of page

ভাইরাল! ছবিতে মৌসমের পা ধুচ্ছেন এক মহিলা

এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয়ে যায়। ছবিতে মৌসমের পা ধুইয়ে দিচ্ছেন এক আদিবাসী মহিলা। সাথে সাথে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে রাজনৈতিক মহলে।


বৃহস্পতিবার মৌসম বেনজির নুর বামনগোলার জগদলা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রচারে গিয়েছিলেন। সেখানে এক আদিবাসী মহিলার বাড়িতে যান তিনি। আদিবাসী মহিলা মৌসমকে ঘরে বসতে দেন। তারপর সেই মহিলা মৌসমের জুতো জোড়া খুলে কাঁসার থালায় পা রেখে পা ধুইয়ে ও মুছে দেন। পরে মালা পরিয়ে বরণও করেন মৌসম নুরকে।

ক্ষমতার যে অহংকার তারই পরিণতি হচ্ছে, আদিবাসী মহিলার হাতে নিজের পা ধুইয়ে নেওয়া

এবিষয়ে জেলা কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি কালীসাধন রায় জানান, তৃণমূল দলে যারাই যায় তারা ক্ষমতার মদমত্ততায় সমাজ ব্যবস্থার যে মূল্যবোধ তা ভুলে যায়। ক্ষমতার যে অহংকার তারই পরিণতি হচ্ছে, আদিবাসী মহিলার হাতে নিজের পা ধুইয়ে নেওয়া। এই ঘটনা গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি নয়। গণতান্ত্রিক মানসিকতাও নয়। এটা সামন্ততান্ত্রিক চিন্তা। গণতান্ত্রিক দেশে এটা অচল, এটা অপরাধ।


যেসমস্ত নেতা এই নোংরা কথা বলছেন। তাদের কোনদিনও এইভাবে কেউ বরণ করেননি।

এই বিষয়ে উত্তর মালদা লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মৌসম বেনজির নূর জানান আদিবাসীদের হাতে পা ধোওয়া কোনও অপরাধ নয়। এটা তাঁদের কালচার। এর আগেও আমাকে তাঁরা এভাবেই বরণ করেছিলেন। আদিবাসী নিয়ম অনুযায়ী কোনও অতিথি তাঁদের বাড়িতে এলে তাঁরা এভাবেই অতিথিদের বরণ করে নেয়। আসলে কংগ্রেস দলের যেসমস্ত নেতা এই নোংরা কথা বলছেন। তাদের কোনদিনও এইভাবে কেউ বরণ করেননি।

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page