top of page

তৃণমূল ও বিজেপি বিবাদে নিহত তৃণমূলকর্মী

কীর্তনের দখলদারিকে কেন্দ্র করে তৃণমূল ও বিজেপি গোষ্ঠীর মধ্যে বিবাদ। সেই বিবাদের জেরে নিহত এক তৃণমূলকর্মী। গতকাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে রতুয়া ২ ব্লকের আড়াইডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের শিমলা গ্রামে৷ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিজেপি কর্মীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে দাবি জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের। যদিও তৃণমূলের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে কীর্তনের ক্ষমতা দখল নিয়ে এই ঘটনা বলে দাবি বিজেপির জেলা সভাপতির।



নিহত তৃণমূল কর্মীর নাম সনাতন মহালদার (৩০)। বাড়ি শিমলা গ্রামে৷ এলাকায় তৃণমূলের সক্রিয় কর্মী হিসাবে পরিচিত সনাতন৷ গত কয়েকদিন ধরে শিমলা গ্রামে কীর্তনের দখলদারি নিয়ে বিবাদ চলছিল তৃণমূল ও বিজেপি গোষ্ঠীর। গতকাল রাতে সেই বিবাদ চরম আকার নেয়। অভিযোগ, বিজেপির কর্মীরা কীর্তনের মাইক বারবার বন্ধ করে দেওয়ায় তৃণমূল কর্মীরা তাদের বোঝাতে যান। সেই সময় বিজেপি কর্মীরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে সনাতনদের দিকে ধেয়ে আসে। হাঁসুয়ার এলোপাথারি কোপ থেকে বাঁচতে সকলে এদিক-ওদিক ছুটতে থাকে। হাঁসুয়ার কোপ লাগে সনাতনের পিঠে।


আক্রান্ত হন আরও ৪ তৃণমূল কর্মী৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুখুরিয়া থানার পুলিশ৷ পুলিশকর্মীরা সনাতনকে স্থানীয় আড়াইডাঙা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।


পুখুরিয়া থানার পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় আপাতত ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ধৃতদের এদিন জেলা আদালতে পেশ করা হয়েছে।

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page