top of page

অনন্ত দর্শনে চলুন কৃষ্ণকালীতলা

এবারের পুজোয় অনন্ত দর্শন। অর্থাৎ বহু দেবতার একত্ব সম্পর্কিত ধারণা একটি রূপ পাবে কৃষ্ণকালীতলা সর্বজনীন দুর্গোৎসবে। যজুর্বেদে তেত্রিশ কোটি দেবতার কথা বলা রয়েছে। তবে হিন্দুধর্মে কোনও নির্দিষ্ট সংখ্যক দেবতার ধারণা নেই৷ বরং একই দেবতার একাধিক রূপ প্রচলিত। বৈদিক যুগ থেকে দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশ ঘুরে হিন্দু দেবদেবীরা এই অবস্থায় পৌঁছেছেন। প্রত্যেক দেবতার আলাদা আলাদা চরিত্র থাকলেও তাঁদের নিরাকার পরমসত্তা ‘ব্রহ্ম' বলে ধরা হয়। তবে সাধারণভাবে তেত্রিশ কোটি দেবতার একটা ধারণা বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু হিন্দুমতে ঈশ্বর, ব্রহ্মাণ্ড, মানুষ ও অন্যান্য জীবজগৎ আসলে একই সূত্রে গ্রথিত। ঈশ্বর আত্মারূপে সকলের মধ্যেই অবস্থান করেন। এই আত্মার (দর্শন) শাশ্বত ও পরম সত্তা ফুটে উঠবে শিল্পী দিব্যেন্দু সাহার তৈরি প্রতিমাতে।



গতবছর কৃষ্ণকালীতলার পুজোর বিষয় ছিল ‘মধুবনে মৌচাক’। দেবতাদের নিয়ে আমরা যা কল্পনা করি, তাই তুলে ধরার চেষ্টা করি প্রতিবছর, ক্লাব সম্পাদক জানালেন। আরও বলেন, একটা ছোট্ট জায়গায় কীভাবে বিশাল ভাবনা রূপ পেতে পারে তার চেষ্টাই আমরা করে চলছি পুজোর সময়। এই অনন্ত দর্শন তৈরির পিছনে মূল কাণ্ডারি বুবাই দাস। তাঁর চিন্তাভাবনাতেই এই থিমের মধ্যে আসা।

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page