top of page

করোনা আতঙ্কে পুজোয় ঘরে নয়, সময় কাটান ডিয়ার পার্কে

করোনা আবহে সমস্যায় পড়েছেন ভ্রমণ পিপাসু মানুষরা। এখনও পর্যন্ত বেশ কিছু পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ রয়েছে। অনেকেই করোনা সংক্রমণের চোখ রাঙানিতে বাড়ি থেকে বেরচ্ছেন না। পুজোর দিনগুলিতে রাস্তায় উপচে পড়া মানুষের ভিড়ে নিজেকে ঘরবন্দি করে রাখার সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছেন অনেকে। তবে পুজোর দিনে নিজেকে মুক্ত করতে ঘুরে আসতে পারেন আদিনা ডিয়ার পার্ক।



উত্তরবঙ্গের বৃহৎ পাখিরালয় এবং হরিণের আবাস কেন্দ্র হিসাবে পরিচিত মালদার আদিনা ডিয়ার ফরেস্ট। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে পর্যটকদের আকর্ষণ বাড়াতে এখানে রাখা হয়েছে চাইনিজ গোল্ডেন ফ্রেজেনট্, অস্ট্রেলিয়ান এবং ইন্দোনেশিয়ার কাকাতুয়া, অস্ট্রেলিয়ান ককাটেল সহ বেশ কিছু বিদেশি পাখি। বন দফতরের সূত্র অনুযায়ী রয়েছে প্রায় ৮০টি হরিণ। বন দফতরের সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, শীতের মরসুমে এই ফরেস্টে আসে সাইবেরিয়ান পরিযায়ী পাখিদের দল। দফতরের তথ্য অনুযায়ী গত বছর এই ফরেস্টে সাইবেরিয়ান পাখির সংখ্যা ছিল ৩২ হাজার ৬৮৮। এবছর সাইবেরিয়ান পাখির সংখ্যা প্রায় ৫০ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।




আজও এই পার্কে বেশ কিছু পর্যটকরাও এসেছিলেন। সৌন্দর্যায়ন এবং বিদেশি পাখি ও হরিণের দল দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন পর্যটকদের অনেকেই। অনেকেই পুজোর অন্তত একটা দিন এখানে এসে সময় কাটাতে চাইছেন।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page