top of page

সংশোধনাগারে বিচারাধীন বন্দির মৃত্যু, পিটিয়ে মারার অভিযোগ পরিবারের

সংশোধনাগারে বিচারাধীন বন্দির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য মালদা শহরে। সংশোধনাগারে স্বামীকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ তুলেছেন মৃতের স্ত্রী।


মৃত বিচারাধীন বন্দির নাম সুকুমার মণ্ডল (৫২)। বাড়ি বামনগোলার চাঁদপুর গ্রামপঞ্চায়েতের নয়াপাড়া এলাকায়। জানা গিয়েছে, গত ১৫ তারিখ পুলিশ সুকুমার মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করে। গতকালই সুকুমারকে জেল হেপাজতে মালদা জেলা সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। ভোর রাতে সুকুমার মণ্ডলের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। মৃতের স্ত্রী রেখা মণ্ডলের অভিযোগ, তাঁর স্বামী কোনোদিন কোনও অসামাজিক কাজে যুক্ত ছিল না। শুনতে পেলাম স্বামীর গায়ে রক্ত দেখা গিয়েছে। আমাদের অনুমান স্বামীকে মারধর করা হয়েছে। সেই কারণেই স্বামীর মৃত্যু হয়েছে।



ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট সুব্রত বিশ্বাস বলেন, সকালেই বিষয়টি তিনি জানতে পারেন। ওয়ার্ডের জানলায় গামছা দিয়ে সুকুমার মণ্ডল নামে এক বিচারাধীন বন্দির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃতদেহের পায়ে ও পায়ুতে রক্ত দেখা গিয়েছে। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা সম্ভব হবে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page