top of page

পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রাক মুহূর্তে বড়ো ধাক্কা তৃণমূলে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে বড়সড় ভাঙ্গন ধরল জেলা তৃণমূল কংগ্রেসে। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা জেলার হেভিওয়েট নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরির ছায়াসঙ্গী ও মালদা জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাধিপতি উজ্জ্বল চৌধুরি যোগদান করলেন বিজেপিতে। কলকাতায় রাজ্য বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে সোমবার তাঁর হাতে বিজেপি-র পতাকা তুলে দেন মুকুল রায়।



পঞ্চায়েত নির্বাচনের নমিনেশন ফাইল শুরু হতেই জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের ভাঙনে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। প্রয়াত কংগ্রেস নেতা এবিএ গনিখান চৌধুরির হাত ধরে রাজনৈতিক জীবনে প্রবেশ করেছিলেন উজ্জ্বলবাবু। গনিখান চৌধুরীর প্রয়াণের পর তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলাপরিষদের যে ছয়টি আসন দখল করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস, তার প্রধান কাণ্ডারি ছিলেন এই উজ্জ্বলবাবু। শুধু তাই নয়, জেলাপরিষদের কংগ্রেস ও বাম সদস্যদের তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করিয়ে মালদা জেলা পরিষদও তৃণমূল কংগ্রেসের দখলের মুল কারিগর ছিলেন উজ্জ্বল চৌধুরি। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তাঁর বিজেপিতে যোগদান স্বাভাবিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে এক বড়ো ধাক্কা। যদিও এখনও এই বিষয়ে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসনের কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি। তবে দলের অন্দরে বেশ ফাটল তৈরি হয়েছে তা কার্যত স্পষ্ট।

উজ্জ্বলবাবু জানান, তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করে খুব ভুল করেছিলেন। এই প্রসঙ্গে তিনি তাঁর যাবতীয় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের বর্তমান সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে। তিনি অভিযোগ করেন যে স্বয়ং তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে জেলা পরিষদের নেতা ঘোষণা করা সত্ত্বেও জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন তাঁকে জেলা পরিষদের কোনো স্থায়ী কমিটিতে স্থান দেননি। অথচ তিনি জেলাপরিষদের সদস্য হিসাবে তিন-তিন বার জয়ী হয়েছিলেন। বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেস দলে কাজ করার লোকের বদলে সুন্দর মুখের লোকের সংখ্যা বেশি। কংগ্রেস দল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কোতুয়ালি ভবন থেকে জেলার কংগ্রেস দল পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হতো সেই কোতুয়ালি ভবনের সদস্যরা দুই দলে বিভক্ত। গনিখান সাহেবের নাম ভাঁড়িয়ে তাঁরা চলছে। তাই তিনি এই দুই দলের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করেছেন। তাঁর সঙ্গে ৬ জন বিজেপিতে যোগদান করেছেন ও আরও ২০০ জন কর্মী যোগদান করবেন। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলায় বিজেপি ভাল ফল করবে বলে জানান তিনি। রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব যদি তাঁকে আসন্ন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত করেন তাহলে তিনি নির্বাচনেও অংশগ্রহণ করবেন।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Bình luận


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page