top of page

বিয়েতে নাছোড়বান্দা, বিষ দিয়ে হত্যায় অভিযুক্ত কিশোরী

আজই বিয়ে করতে হবে দাবি পাত্রীর। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় যুবককে খুনের অভিযোগ উঠল প্রেমিকা ও পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের পাঁচ দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।


মৃত যুবকের নাম ভজ মহালদার (১৯)। বাড়ি মানিকচকের ধনরাজ গ্রামে। পেশায় শ্রমিক ভজ বেশিরভাগ সময়ই ভিনরাজ্যে থাকত। জানা গেছে, শিবরাত্রিতে শিবের মাথায় জল ঢালতে সে বাড়ি আসে। শিবরাত্রির আগের রাতে ওই এলাকায় জলসা ছিল। ভজ জলসা দেখতে গিয়েছিল। অভিযোগ, সেই সময় মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী এক কিশোরী ভজকে ফোন করে পাশের আমবাগানে ডাকে। সেখানে বিয়ের জন্য তাকে চাপ দিতে থাকে। রাজি না হলে জোর করে ভজকে বিষ খাইয়ে দেয় ওই কিশোরী সহ দু-তিনজন। এরপর ভজ পরিবারের লোকদের ফোনে সমস্ত ঘটনা জানায়। স্থানীয় লোকজন ভজকে উদ্ধার করে মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করে। চিকিৎসকরা তাঁকে মালদা মেডিকেল কলেজে রেফার করে দেন। মেডিকেল কলেজে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় ভজ’র।


মানিকচক থানার পুলিশ

অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার রাতে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ এই ঘটনায় আরও কেউ জড়িত রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷


ভজ’র মা চন্দনা মহালদার জানান, ছেলের সঙ্গে মেয়েটির সম্পর্ক ছিল কি না জানা নেই৷ জানা থাকলে তাঁরা বিয়ের জন্য আপত্তি করতেন না। শিবরাত্রির আগের রাতে ওই কিশোরী ছেলেকে ফোন করে ডাকে। ছেলে ওই কিশোরীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে ছেলেকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে সে। ছেলে ওই কিশোরীকে জানায় এখন সে বিয়ে করতে পারবে না। কাজ থেকে ফিরে বিয়ে করবে। কিন্তু ওই কিশোরী কোনও কথা মানতে রাজি হয়নি। অবশেষে জোর করে ছেলেকে বিষ খাইয়ে দেয়।


মানিকচক থানার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার রাতে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ এই ঘটনায় আরও কেউ জড়িত রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷


প্রতীকী ছবি।


মালদা জেলার খবর ও বিনোদনের লেটেস্ট ভিডিয়ো আপডেট পেতে ক্লিক করুন

Kommentare


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page