top of page

দেখা নেই বর্ষার, মাথায় হাত পাট চাষিদের

এখনও বর্ষার দেখা নেই মালদায়। অনাবৃষ্টিতে মাঠে চিড় ধরতে শুরু করেছে। তাপমাত্রার জেরে মাথায় হাত পড়েছে ধান ও পাট চাষিদের। এই পরিস্থিতিতে সরকারি সাহায্যের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন চাষিরা।


অন্যান্য বছর এই সময় প্রায় সমস্ত চাষি আমন ধানের কাজ শুরু করে দেন। তবে এবছর অনাবৃষ্টিতে এখনও অনেকে চাষের কাজ শুরু করতে পারেনি। সমস্যায় পড়েছেন পাট চাষিরাও। প্রখর রোদে বেশিরভাগ জলাশয় শুকিয়ে গিয়েছে। জলাশয়ে জল না পেয়ে সংকটে পড়েছেন পাট চাষিরাও। এক পাটচাষির দাবি, বৃষ্টির দেখা নেই। সমস্ত জলাশয় শুকিয়ে কাঠ। প্রখর রোদে জলের অভাবে পাটগাছ ঝলসে যাচ্ছে। এমনিতেই পাটের দাম পাওয়া যাচ্ছে না। তার উপর যা পরিস্থিতি তাতে জলসেচ করে পাট চাষ করা সম্ভব নয়। দু-একদিনের মধ্যে বৃষ্টি না এলে তাঁদের সমস্যায় পড়তে হবে। এই পরিস্থিতিতে সরকারি সাহায্যের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন তাঁরা।



জেলা কৃষি দফতরের আধিকারিক জানান, এবছর মালদা জেলায় প্রায় ৩৩ হাজার হেক্টর জমিতে পাটচাষ হয়েছে। বৃষ্টির অভাবে পাটচাষের অবস্থা খুবই খারাপ। মালদা জেলায় জুন মাস থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বর্ষা দেখা যায়। কিন্তু এবছর জুন থেকে ১২ জুলাই পর্যন্ত জেলায় বৃষ্টি হয়েছে মাত্র ৮৮০৫ মিলিমিটার। অর্থাৎ এখনও পর্যন্ত বর্ষার ঘাটতি প্রায় ৭৬ শতাংশ। আশা করা হচ্ছে কয়েকদিনের মধ্যে বৃষ্টি দেখা দিলে খানিকটা রেহাই পাবেন পাটচাষিরা।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Commenti


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page