top of page

জাতীয় সড়কে প্রবল যানজট, ক্ষুব্ধ মালদাবাসী

শহরের যানজট নিয়ন্ত্রণে যৌথভাবে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছিল ইংরেজবাজার পুরসভা ও প্রশাসন। মিলেছিল খানিকটা সাফল্যও। তবে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ বাইপাস বন্ধ করে দেওয়ায় এক মাস ধরে যানজটের কবলে শহর। শহরের তীব্র যানজট রুখতে বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নামল মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সদস্যরা।



আগামী মাসে ১ অক্টোবরের মধ্যে বাইপাস চালু হয়ে যাবে বলে আশাবাদী জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ।

বুধবার দুপুরে মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের পক্ষ থেকে একটি মিছিল শহর পরিক্রমা করে। শহর পরিক্রমা করে মিছিলটি জাতীয় সড়কের দপ্তরের সামনে জমায়েত হয়। জাতীয় সড়ক দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সদস্যরা। অবশেষে চেম্বার অব কমার্সের সদস্যরা জাতীয় সড়ক দপ্তরের আধিকারিকদের হাতে দাবিপত্র তুলে দেন।


মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুণ্ডু জানান, বাইপাস বন্ধ থাকায় শহরে তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। ১০ মিনিটের রাস্তা যেতে প্রায় ১ ঘণ্টা সময় অতিক্রান্ত হচ্ছে। সাধারণ মানুষের সঙ্গে হয়রানি হতে হচ্ছে ব্যবসায়ীদেরও। এখনও পর্যন্ত কোনো রাজনৈতিক দল এবিষয়ে এগিয়ে আসেনি। বাধ্য হয়েই আজ তাঁরা রাস্তায় নেমেছেন। আগামী ৭ দিনের মধ্যে বাইপাস খুলে না দেওয়া হলে জেলার ব্যবসায়ীরা টোল ট্যাক্স দেওয়া বন্ধ করে দেবে বলেও হুমকি দেন জয়ন্তবাবু।


এবিষয়ে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বাইপাস এখনও চালু করা হয়নি। অথচ বাইপাস দিয়ে গাড়ি চলাচল শুরু হয়ে গিয়েছিল। তাতে রাস্তার বেশ ক্ষতি হয়েছে। রাস্তা পুরোপুরি শেষ হতে আরও সময় লাগবে। চেম্বার অব কমার্স আজ তাদের দাবি পেশ করেছে। আগামী মাসে ১ অক্টোবরের মধ্যে বাইপাস চালু হয়ে যাবে বলে আশাবাদী জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ। যদিও বাইপাসের দুটি লেনের কাজ শেষ করার শেষ দিন ছিল ১৫ নভেম্বর ও চারটি লেনের শেষ সময় ছিল আগামী বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি।

Komentarai


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page