top of page

মাদক মুক্ত করতে নারকোটিক সেল গঠন প্রশাসনের

নাবালিকার ধড় ও মুণ্ডু আলাদা করে নৃশংস খুনের ঘটনায় কেঁপে উঠেছে মালদা শহর। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত নাবালিকার জ্যেঠতুতো দাদার মাদকাসক্তি রয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এই নেশা থেকেই এই ঘটনা ঘটেছে বলেও অভিযোগ উঠে এসেছে শহরবাসীর মুখে। আর এই অভিযোগ উঠতেই সতর্ক হয়েছে জেলা প্রশাসন। প্রশাসনের তরফে গঠন করা হয়েছে নারকোটিক সেল।


ওই নাবালিকা পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে এসে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার সরাসরি পুলিশ ও প্রশাসনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। ড্রাগসের নেশা থেকেই অভিযুক্ত ওই নাবালিকাকে নৃশংসভাবে খুন করেছে বলেও অভিযোগ করেছিলেন তিনি। এমন অভিযোগ থেকেই মাদক কারবার রুখতে তৎপর হয়েছে জেলা প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলাশাসক পূযূস সালুঙ্খের নেতৃত্বে ইতিমধ্যে গঠন করা হয়েছে নারকোটিক সেল। বিভিন্ন এলাকা চিহ্নিত করে অভিযান চালানো হবে বলে প্রশাসনিক সূত্রে খবর।


ফাইল চিত্র।

জেলাশাসক নীতিন সিংহানিয়া জানান, মাদকমুক্ত করতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ নারকোটিক সেল গঠনের সঙ্গে কিশোরী খুনের কোনও সম্পর্ক নেই৷ আমরা ঠিক করেছি, মাদকাসক্তদের রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারে পাঠিয়ে সুস্থ করে তোলা হবে৷ এনিয়ে ইতিমধ্যে বৈঠক করা হয়েছে। নারকোটিক সেলে জেলা প্রশাসনের সঙ্গে পুলিশ, পুরসভা সহ একাধিক দফতরকে রাখা হয়েছে৷


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page