top of page

পাঠান দেখতে ভাইয়ের কাঁধে বিহার থেকে মালদায় রুস্তম

পায়ে দাঁড়াতে পারেন না। তাতে কী হয়েছে? প্রিয় হিরোর সিনেমা দেখতে ভাইয়ের কাঁধেই বিহার থেকে ছুটে এলেন মালদায়। সামসীর সিনেমা হলে লড়াই করে টিকিট নিয়ে হিরোর অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়ে ফিরলেন ঘরে। এমন ফ্যানের গল্প হয়তো জানেন না খোদ গুরুও।


সম্প্রতি শাহরুখের পাঠান সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। প্রথম দিনেই সুপারহিটের তকমা পেয়েছে পাঠান। তবে বিহারের ভাগলপুর জেলার লক্ষ্মীসরাইয়ের কাছাকাছি কোনও সিনেমা হলে আসেনি পাঠান। দূরের যে দু-তিনটে হলে পাঠান দেখানো হচ্ছে সেখানেও মানুষের উপচে পড়া ভিড়। কোথাও আবার টিকিট বিকোচ্ছে ব্ল্যাকে। তবে নাছোড়বান্দা রুস্তমও। প্রিয় হিরোকে সিনেমার পর্দায় দেখতে ভাই সাজ্জাদয়ের কাঁধে চেপে ভাগলপুর থেকে ছুটে এসেছিলেন সামসীতে। ভাইয়ের কাঁধে চেপে ভাগলপুর থেকে ট্রেনে রাজমহল৷ সেখান থেকে লঞ্চে গঙ্গা পার করে মানিকচক৷ এরপর মানিকচক থেকে সামসী৷ প্রায় ৬ ঘণ্টার যাত্রার পরেও লড়াই শেষ হয়নি। সিনেমা হলে টিকিটের জন্য লড়াই চালিয়ে অবশেষে প্রিয় হিরোর অভিনয়ের সাক্ষী হতে পেরেছেন রুস্তম।


রুস্তম জানান, তিনি হাঁটতে পারেন না৷ সেকারণেই ভাইয়ের পিঠে চেপে পাঠান দেখতে এসেছেন৷ তাঁরা বিহারের ভাগলপুর জেলার লক্ষ্মীসরাইয়ের বাসিন্দা৷ তাঁরা দুইভাই শাহরুখের ফ্যান৷ তাঁদের বাড়ির কাছাকাছি কোনও হলেই পাঠান দেখানো হচ্ছে না৷ তাই গুরুর সিনেমা দেখতে সামসীতে এসেছেন।





আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page