top of page

প্রথম শরিফা, হাই মাদ্রাসায় প্রথম দশে মালদার ১০ পড়ুয়া

২০২২ সালের মাদ্রাসা পরীক্ষায় প্রথম দশে স্থান পেয়েছে ১৫ জন। তার মধ্যে ১০ জনই মালদা জেলার। মাদ্রাসা পরীক্ষায় জেলার এই সাফল্যে জেলা জুড়ে খুশির হাওয়া বইছে। রাজ্যে হাই মাদ্রাসা, আলিম এবং ফাজিল এই তিনটি ভাগে পরীক্ষা হয়। এদিন দুপরে মেধা তালিকা ঘোষণা করেছে পর্ষদ।


মাদ্রাসা বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী এবছর হাই মাদ্রাসায় পাসের হার ৮৭.০২ শতাংশ। হাই মাদ্রাসা পরীক্ষায় প্রথম দশ স্থানে থাকা ১৫ জনের মধ্যে ১০ জনই মালদার। ৭৮৬ নম্বর পেয়ে রাজ্যে প্রথম হয়েছে রতুয়া ২ নম্বর ব্লকের বটতলা আদর্শ হাই মাদ্রাসার ছাত্রী শরিফা খাতুন। ৭৭৫ নম্বর পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন ওই মাদ্রাসার ছাত্রী ইমরানা আফরোজ। রাজ্যে যুগ্ম তৃতীয় রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের রামনগর হাই মাদ্রাসার ছাত্র মোহম্মদ ওয়াকিল আনসারি এবং কালিয়াচক ১ নম্বর ব্লকের দারিয়াপুর বাইশি হাই মাদ্রাসার আজিজা খাতুন। তাঁদের প্রাপ্ত নম্বর ৭৭৩। ৭৭১ নম্বর পেয়ে চতুর্থ হয়েছে গাজোলের রামনগর হাই মাদ্রাসার ছাত্রী রৌনক জাহান। ৭৬৯ নম্বর পেয়ে পঞ্চম স্থান পেয়েছে কালিয়াচকের এনএমএস হাই মাদ্রাসার সানিয়া পারভিন। যৌথভাবে নবম স্থান পেয়েছে রতুয়া ভগবানপুর হাই মাদ্রাসার মনীষা ইসলাম ও কালিয়াচকের এনএমএস হাই মাদ্রাসার আশিকা খাতুন। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৭৬৫। ৭৬৩ নম্বর নিয়ে যুগ্মভাবে দশম স্থান পেয়েছে বটতলা আদর্শ হাই মাদ্রাসার দুই ছাত্রী মাহিদা খাতুন ও আঞ্জুমানারা।



শরিফা জানায়, পরীক্ষার পর থেকে সে প্রথম দশের মধ্যে থাকার আশা করেছিল। তবে প্রথম স্থান মিলবে তা সে আশা করতে পারেনি। তাঁর বাবা তেমন শিক্ষিত নন। ঝালমুড়ি বিক্রি করে সংসার চালান। উচ্চ শিক্ষার জন্য সরকারি সাহায্যের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন করবে সে। বড়ো হয়ে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ হওয়ার ইচ্ছে রয়েছে তার।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Commentaires


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page