top of page

স্ত্রীকে দায়ী করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা যুবকের

স্ত্রীকে দায়ী করে আত্মঘাতী যুবক। খবর পেয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চাঁচলে।


মৃত যুবকের নাম ছোটন কর্মকার (৩০)। বাড়ি চাঁচলের জেলেপাড়ায়। গত কয়েকবছর ধরে তিনি পরিবার সহ রাজীব মোড়ে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। আজ সকালে ছোটনবাবুর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। সেই ঘরের দেওয়ালে দেখা ছিল “আমার মৃত্যুর জন্য দায়ী আমার স্ত্রী সপ্তমী। আমার বাবা-মা আর মেয়েদের খেয়াল রেখ।” এরপরেই পুলিশ ছোটনবাবুর স্ত্রীকে সপ্তমীকে আটক করে।



সপ্তমী জানান, তিনি স্বামীকে মদ ছাড়ার কথা বলতেন। কিন্তু স্বামী সাফ জানিয়েছিল, সে মদ ছাড়তে পারবেন না। প্রতিমাসে পাওনাদাররা তাঁকে টাকার কথা বলত। কিন্তু স্বামী টাকা পয়সা দিত না। এনিয়ে পরিবারে প্রায়শই অশান্তি লেগে থাকত। স্বামী সব সময় বলত, সে মরে গেলে তাঁকে ফাঁসিয়ে যাবে। অশান্তির জন্য গত তিনদিন তিনি বাবার বাড়ি গিয়েছিলেন। এরমধ্যে এসব ঘটেছে।



ছোটনের ভাই গৌরাঙ্গ জানান, কয়েকদিন আগে তাঁর দাদা স্ত্রীর আচরণ নিয়ে অভিযোগ করেছিল। তাঁর বেঁচে থাকার ইচ্ছে নেই সেকথাও জানিয়েছিল। যেহেতু দাদা তাঁর স্ত্রীকে দায়ী করেছেন, তাই তিনি দাদার স্ত্রীর বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করবেন।



আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page