top of page

দীর্ঘদিন পর লাভের মুখ দেখার আশায় শুঁটকি ব্যবসায়ীরা

প্রথমে লকডাউন। পরে অকাল বৃষ্টির জেরে ব্যবসা যেন ভেঙে পড়েছিল। অবশেষে প্রায় তিন বছর পর লাভের মুখ দেখতে চলেছেন শুঁটকি প্রস্তুতকারী ব্যবসায়ীরা।


মালদা জেলার ইংরেজবাজারের সাট্টারি-বিনোদপুর অঞ্চলের বহু মানুষ শুঁটকি মাছের ব্যবসায় জড়িত। শুঁটকি মাছের সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীরা মূলত দিঘা থেকে মাছ নিয়ে আসে। এখানে মাছ ধোয়া থেকে শুরু করে বাঁশের মাচা করে সেই মাছ রোদে শুকোতে হয়। তারপরে সেই মাছ প্যাকেটজাত করে চলে যায় ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গায়। উত্তর-পূর্ব ভারতের সিকিম, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, মিজোরাম, অসম রাজ্যগুলিতে এই মাছ বেশ জনপ্রিয়।



শুঁটকি প্রস্তুতকারকরা জানান, মূলত দিঘা-পারদ্বীপ থেকে সামুদ্রিক মাছগুলি নিয়ে আনা হয়। প্রথমে মাছগুলিকে ভালো করে জলে পরিষ্কার করা হয়। তারপর খোলা আকাশে রোদে শুকোতে দেওয়া হয়। গ্রামের কয়েক একর জমি জুড়ে বাঁশের মাচায় মাছ শুকোনো হয়। গত কয়েকবছর সেভাবে ব্যবসা হয়নি। প্রথমে লকডাউনের জেরে মাছের আমদানি রফতানি সবই বন্ধ ছিল। লকডাউন শেষে ব্যবসা শুরু হতেই অকাল বৃষ্টিতে ক্ষতিতে পড়তে হয়। অবশেষে এবছর ব্যবসা খানিকটা বেড়েছে।





আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page