top of page

LIVE: শুরু হয়েছে মালদায় ভোটগ্রহণ পর্ব

সকাল সাতটা বাজতেই শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ পর্ব। তৃতীয় দফার এই ভোটে ৯২ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়োগ করা হয়েছে, বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।


LokSabha Election

  • ইংরেজবাজারে উইমেন্স কলেজে একটি ইভিএম মেশিন খারাপ, ভোটগ্রহণ স্থগিত।

  • চাঁচলের পাহাড়পুরে ২৩৬ নম্বর বুথেও ইভিএম মেশিন খারাপ। সেখানেও বন্ধ আছে ভোটগ্রহণ।

  • ওল্ড মালদা ব্লকের মঙ্গলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৫৩ নম্বর বুথে ইভিএম মেশিন খারাপ, ফলে ভোটগ্রহণ ব্যাহত। 

  • মালতিপুরে বলরামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯৫ নম্বর বুথে ইভিএম মেশিন খারাপ থাকার কারণে ভোটগ্রহণ শুরু হয়নি। ভোটারদের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে

  • ইংরেজবাজারে শান্তিসেন বালিকা বিদ্যালয়ের ১৯২, ১৯৩ ও ১৯৪ নম্বর বুথে এখনও ভোটগ্রহণ শুরু হয়নি। ইভিএম খারাপ।

  • চাঁচল রাজ হিন্দু হোস্টেলের বাইরে লম্বা লাইন। মহিলা ভোট কর্মী পরিচালিত এটি একটি মডেল বুথ। ভোট শুরু হওয়ার প্রথম দিকেই ইভিএম মেশিন ঠিক থাকলেও ভিভিপাট মেশিন খারাপ থাকার জন্য এখনও ভোটগ্রহণ শুরু হয়নি এখানে।

  • রতুয়ার কাহালা নরোত্তমপুর হাইস্কুলে সকাল থেকে ইভিএম খারাপ। ভোটারদের দীর্ঘ লাইন

  • ছাপ্পা ভোটে সাহায্য করার অভিযোগে রতুয়া ৭৯ নম্বর বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হল

  • সকাল ৯টাঃ উত্তর মালদায় ভোটগ্রহণ হয়েছে ১৬.১০% ও দক্ষিণ মালদায় ১৫.৬৩%

  • চাঁচলের ধূমশাদিঘির ২১৬ নম্বর বুথে বোমাবাজি করে ভোটারদের বুথে যেতে বাধা দিচ্ছে দুষ্কৃতীরা এই অভিযোগ জানালেন উত্তর মালদার কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরি

  • তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে আহত হলেন তিন তৃণমূল কর্মী৷ ভোটারদের বুথে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বৈষ্ণবনগর বিধানসভা কেন্দ্রের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের গোপালনগর গ্রামে৷ আহতদের মধ্যে একজন মহিলারাও আছেন৷ বৈষ্ণবনগরের গোপালনগরে তৃণমূল শিবির দুটি গোষ্ঠীতে বিভক্ত৷ আজ দুই গোষ্ঠীই ভোটারদের বুথে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ এনিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে প্রথমে বচসা শুরু হয়৷ সেই বচসা একসময় সংঘর্ষের রূপ নেয়৷ আহতরা হলেন হাবুল শেখ, ভগু মিঞা ও সিতারা বিবি৷ তাদের সবাইকে স্থানীয় গোলাপগঞ্জ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে৷

  • রতুয়া বিধানসভা কেন্দ্রের বাহারাল ১১৭ নম্বর বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে বুথে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগে সরানো হল৷ কংগ্রেসের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ওই বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে সরানো হয়৷ কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ, ভোটারদের এপিক কার্ড কেড়ে নিচ্ছিল এক দুষ্কৃতী৷ সে নিজেই সেই এপিকে ভোট দিচ্ছিল৷ এনিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেন জেলা কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি কালীসাধন রায়৷ তিনি জানিয়েছেন, ওই বুথে এই কাণ্ড ঘটাচ্ছিল এলাকার তৃণমূল নেতা মহম্মদ ইয়াসিনের এক ভাই৷ তবে তাঁদের অভিযোগ করার পরেই সেখানে ব্যবস্থা নেয় কমিশন৷ সাথে সাথে সরিয়ে দেওয়া হয় ওই বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে৷

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page