top of page

৩ মাসেই বন্ধ বাতিস্তম্ভ! পঞ্চায়েত দুর্নীতির আখড়া, কটাক্ষ বিরোধীদের

শাসকদলীয় গ্রামপঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠল চাঁচলে। বিডিওর সঙ্গে কথা বলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস মহকুমাশাসকের।


পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গেছে, এমজিএনআরজিএস প্রকল্পের তহবিল থেকে গ্রামে প্রায় তিন লক্ষ টাকা বরাদ্দে প্রতিটি উচ্চবাতি বসানো হয়েছে। তবে তা তিনমাসের মধ্যেই বিকল হয়ে পড়ে। বর্তমানে অকেজো অবস্থায় পড়ে রয়েছে বাতিস্তম্ভগুলি। ফলে সন্ধ্যা হলেই অন্ধকার নেমে আসে গোটা গ্রামে। রাতে চলাফেরা করতে সমস্যায় পড়েন পথচারীরা। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করা হয়েছে ও মেরামতের দাবি নিয়ে আবেদন জানানো হয়েছে ব্লক ও মহকুমা প্রশাসনের কাছে। আবেদন পেয়ে বিডিওকে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন চাঁচলের মহকুমাশাসক কল্লোল রায়।



চাঁচল-১ ব্লকের খরবা গ্রামপঞ্চায়েতের মনিকান্দা গ্রামের বাসিন্দাদের অভিযোগ, এলাকা আলোকিত করার জন্য বসানো হয়েছিল দুটি উচ্চ বাতিস্তম্ভ। কিন্তু তিন মাসের মধ্যে বিকল হয়ে পড়ে ওই বাতিস্তম্ভগুলি। পঞ্চায়েতে বারবার জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। গোটা ঘটনা নিয়ে ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক ও চাঁচল মহকুমাশাসকের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ জানানো হয়েছে।



যদিও নিজেদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে মুখ খুলতে চাননি খরবা গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান। প্রতিটি পঞ্চায়েত এখন তৃণমূলের দুর্নীতির আখড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে কটাক্ষ বিজেপি’র।

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page