top of page

জেলা প্রশাসনকে দুর্নীতির তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

ইংরেজবাজারের ফুলবাড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে দুর্নীতির অভিযোগে জেলা প্রশাসনকে তদন্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। ইতিমধ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। দ্রুত সেই রিপোর্ট আদালতের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।


ফুলবাড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দাদের অভিযোগ, পঞ্চায়েত প্রধান রহিমা বিবি ও তাঁর স্বামী সমস্ত সরকারি প্রকল্পে দুর্নীতি করে টাকা আত্মসাৎ করছে। প্রায় সমস্ত টেন্ডার পাইয়ে নিময় বর্হিভূতভাবে নিজের ভাইপোকে পাইয়ে দিচ্ছে। তারপর কাজ না করেই সেই টাকা পকেটে পুড়ছে। এভাবে পঞ্চায়েত প্রায় ১২ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে পঞ্চায়েত প্রধান। এনিয়ে স্থানীয় লোকজন একাধিকবার ব্লক ও জেলা প্রশাসনে অভিযোগ জানান। অবশেষে পঞ্চায়েতের নির্দল সদস্যর স্বামী আবদুল আরেফ কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসনকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।


নঘরিয়া গ্রামের বাসিন্দা ওয়াসিম রাজা বলেন, পঞ্চায়েতের প্রতিটি সরকারি প্রকল্পে প্রধান রহিমা বিবি আর তাঁর স্বামী দুর্নীতি করছেন। সরকারি ঘর বিলির নামে টাকা তোলা হয়েছে। বাঁধ সংস্কারের কাজ না করেই কাজ দেখিয়ে টাকা তোলা চলছে। এমনকি পঞ্চায়েতের বেশিরভাগ কাজের টেন্ডার ঘনিষ্ঠ লোকেদের পাইয়ে দিয়ে নিম্নমানের কিংবা কাজ না করেই টাকা তোলা হয়েছে।



বিজেপির জেলা নেতা গৌরচন্দ্র মণ্ডল জানান, ফুলবাড়িয়া পঞ্চায়েতে দুর্নীতির অভিযোগে কলকাতা হাইকোর্ট জেলাশাসককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে৷ তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী জানান, প্রশাসন তদন্ত করুক। তদন্তের পরই সব সত্যতা সামনে আসবে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page