top of page

শহরে প্রকাশ্যে বিকোচ্ছে হাইকোর্টের নিষিদ্ধ আতসবাজি

কালীপুজোয় এবার গোটা রাজ্যেই বাজি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। সেই নির্দেশের পরেও আজ মালদা শহরের বাজি বিক্রির ছবি দেখা গেল। আজ মালদা শহরের নেতাজি পুরবাজার ও চিত্তরঞ্জন পুরবাজারে আতসবাজির পসরা সাজিয়ে থাকতে দেখা যায় বিক্রেতাদের।


HC bans firecrackers on Kali Puja

রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ ও ওড়িশার পর এবার আমাদের রাজ্যেও বাজি পোড়ানো আপাতত নিষিদ্ধ হয়েছে। গতকাল এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। উল্লেখ্য, রাজ্যের কাছে আগেই বাজি নিষিদ্ধ করতে আবেদন জানিয়েছিল চিকিৎসকদের একাধিক সংগঠন। বিভিন্ন রাজ্যে একাধিক সংগঠন এই বিষয়ে পরিবেশ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল। আতসবাজি ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞার জন্য হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন অনসূয়া চক্রবর্তী নামে এক মহিলা। এ ছাড়াও আদালতের হস্তক্ষেপ চেয়ে জনৈক অজিত দে আরেকটি মামলা করেছিলেন দুর্গাপুজোর মতোই কালীপুজো, কার্তিক পুজো এবং জগদ্ধাত্রী পুজোতেও ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতে। এই সবকটি মামলা খতিয়ে দেখে এই নির্দেশ দিয়েছে আদালত।



বিক্রেতাদের দাবি, হঠাৎ করে বাজি নিষিদ্ধ করার নির্দেশে ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে আতসবাজি ব্যবসায়ীদের। সমস্ত ব্যবসায়ী টাকা ধার করে মাল তুলেছে। এই পরিস্থিতিতে ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। যদি মাস দুয়েক আগে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হত তাহলেও হয়তো এতটা ক্ষতি হতো না। এমনিতেই লকডাউন পর ব্যবসা নেই। দীপাবলিতে যে উপার্জনের আশা করেছিলেন ব্যবসায়ীরা সেই আশাতেও জল ঢেলেছে আদালত। আদালত নির্দেশ না তুললে বড়োসড়ো ক্ষতির মুখে পড়তে হবে তাঁদের।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Kommentare


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page